বিদ্যাসাগর মেলায় এসে তাঁর জন্মস্থান দেখে স্বপ্ন পূরণ করলেন পঞ্চায়েতমন্ত্রী

কুমারেশ রায়, আমাদের ভারত, মেদিনীপুর, ৪ জানুয়ারি: বিদ্যাসাগর মেলা উদ্বোধন করতে এসে বলেন, স্বপ্ন ছিল পন্ডিত ঈশ্বর চন্দ্র বিদ্যাসাগরের জন্মস্থানে আসা। হয়ে ওঠেনি। অনেকদিনের সুপ্ত বাসনা বিদ্যাসাগরের জন্মস্থান দেখব কিন্তু আসা হয়নি। আজ বিদ্যাসাগর মেলার উদ্বোধন করতে এসে সুপ্ত বাসনা পূর্ণ ও জীবন সার্থক হল বললেন পঞ্চায়েত মন্ত্রী সুব্রত মুখার্জি। বিদ্যাসাগরের বাড়ি দেখেছি, লাইব্রেরি দেখেছি। বিদ্যাসাগরের জন্মস্থান দেখে আমি মুগ্ধ। বিদ্যাসাগরকে বাদ দিয়ে আমাদের কিছু নেই আমরা বাংলার মানুষ ভারতের মানুষ বিদ্যাসাগরের সমাজ চেতনা তাঁর রেনেসাঁ সামাজিক দিক থেকে তার শিক্ষা জগতে নয় ভারতবর্ষে বাংলায় একটা বিপ্লব এনে দিয়েছে। মানুষ যতদিন বেঁচে থাকে শ্রদ্ধা থাকবে এই মহান পন্ডিত বিদ্যাসাগরের প্রতি। আমরা জন্মানোর পর যে শব্দগুলো উচ্চারণ করি তা বিদ্যাসাগরের দান। এই জায়গায় মেলাতে আমন্ত্রিত হয়ে আনন্দিত উদ্বেলিত এবং এখানে হাজার হাজার মানুষ এসেছে এই স্থানে সেটাই গর্ব।

তিনি বলেন, আপনারা কতটা গর্বিত আমি জানিনা আমি গর্বিত এই রাজ্যের মানুষ হিসেবে। তবে যারা বিদ্যাসাগরের জন্মস্থানের পাশাপাশি থাকেন তারাও গর্বিত। এই এলাকার মানুষ অহংকার করে বলতেই পারে আমরা বিদ্যাসাগরের গ্রামের মানুষ। এই অনুষ্ঠানে ছিলেন, বিধায়ক শঙ্কর দোলই, বিধায়ক মমতা ভূ্ঁইঞা, মহকুমাশাসক অসীম পাল, এসডিপিও কল্যাণ সরকার, খড়ারের চেয়ারম্যান উত্তম মুখার্জি, পঞ্চায়েত সমিতির সহ সভাপতি দিলীপ মাঝি, কাউন্সিলর গৌতম ভট্টাচার্য, সুজয় পাত্র শিক্ষক বিকাশ কর, সুজিত ব্যানার্জি।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here