লকডাউনের নির্দেশিকাকে তোয়াক্কা না করেই গোপনে মসজিদে নমাজ পড়তে জমায়েত, উত্তেজনা চুঁচুড়ায়

আমাদের ভারত, হুগলী,১৮ এপ্রিল: বিশ্বজুড়ে মহামারি আকার ধারণ করেছে করোনা। আর এই মারন ভাইরাসের সংক্রমণ রুখতে ভারতে চলছে দ্বিতীয় দফার লকডাউন। কিন্তু লকডাউনের সরকারি নির্দেশকে একরকম তুড়িমেরে উড়িয়ে জুম্মাবারে মসজিদের ভেতর গোপনে নমাজ পাঠ করা হচ্ছিল। বিষয়টা জানতে পেরে উত্তেজনা ছড়ায় এলাকায়। ঘটনাটি ঘটেছে হুগলির চুঁচুড়ায়।

দেশের প্রধানমন্ত্রী হোক বা পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী, করোনা সংক্রমণ আটকাতে বারবার সবাইকে হাতজোড় করে লকডাউন সফল করার জন্য অনুরোধ করছেন। বারবার অনুরোধ করছেন যাতে এক জায়গায় বেশি মানুষ জমায়েত না হন। ৫ জনের বেশি মানুষের একজায়গায় জমায়েত হওয়া যেখানে নিষিদ্ধ, সেখানে ৬০ জনের উপরে এক জায়গায় বসে নমাজ পড়া শুরু করেছিল চুঁচুড়ার তালডাঙ্গায় অবস্থিত জুম্মা মসজিদে।

সরকারি নির্দেশিকাকে বুড়ো আঙ্গুল দেখিয়ে কিশোর থেকে বৃদ্ধ প্রায় ৬০ জনেরও বেশি মানুষ নমাজ পড়ার জন্য জোড়ো হয়েছিল চুঁচুড়ার ওই মসজিদে। নমাজ পাঠ শুরুও হয়েছিল। কিন্তু জমায়েতের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছায় চুঁচুড়ার পুলিশকর্মীরা।

পুলিশকে আসতে দেখে কোনোক্রমে পালিয়ে যান বেশ কয়েকজন। পুলিশ মসজিদ কমিটিকে শেষবারের মতো সতর্ক করে দিয়ে বলেন এই ঘটনার কোনও পুনরাবৃত্তি যেন না হয়। এই একই ঘটনা যদি আবার ঘটে সেখানে তাহলে আইনত ব্যবস্থা নেওয়ার হুঁশিয়ারি দিয়েছে পুলিশ।

এদিকে জুম্মা মসজিদের ইমাম জানিয়েছেন, লক ডাউনের নির্দেশিকা এবং করোনার মত মারন ভাইরাস নিয়ে বারবার সবাইকে সচেতন করার চেষ্টা চলছে। কিন্তু অনেকেই তা মানতে চাইছেন না।

এদিকে স্থানীয় মানুষের ক্ষোভ নিজামুদ্দিনের ঘটনা থেকেও মানুষ শিক্ষা নেয়নি। তাদের দাবি সরকারি নির্দেশ যদি কেউ অমান্য করে তাহলে, প্রশাসন যেনো এবার তাদের বিরুদ্ধে উপযুক্ত ব্যবস্থা নেয়।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here