করোনা মোকাবিলায় বিধায়ক বিশ্বজিৎ দাস’কে পাশে পেয়ে আত্মবিশ্বাসী বনগাঁর মানুষ

সুশান্ত ঘোষ, আমাদের ভারত, বনগাঁ, ৭ এপ্রিল: কোনও দল দেখে নয়, জনপ্রতিনিধি বিশ্বজিৎ দাসকে কাছে পেয়ে বনগাঁ বিধানসভার মানুষ খুশি। তিনি গত বছর তৃণমূলে ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন। ফলে বনগাঁর এক অংশের মানুষ ক্ষুব্ধ ছিল। তবে এই বিপদের দিনে তাঁকে পাশে পেয়ে ফের আত্মবিশ্বাস ফিরে পেলেন আমজনতা। ইতিমধ্যেই তিনি করোনা মোকাবিলায় ৪৪ লক্ষ টাকার চিকিৎসার সামগ্রী তুলে দিয়েছেন বনগাঁ মহকুমা হাসপাতালের সুপারের হাতে। এছাড়া, লকডাউনের পর থেকে গ্রামে গ্রামে মাস্ক, স্যানিটাইজার সহ খাদ্য সামগ্রী তুলে দিয়েছেন মানুষের হাতে। এই মহামারীতে তাঁকে পাশে পেয়ে খুশি বনগাঁর মানুষ।

বিশ্বজিৎ দাস বলেন, বনগাঁর শিমুলতলা, রেলবাজার, পাইকপাড়া সহ সমস্ত শহর ও গ্রামে মানুষের পাশে আমি ছিলাম, আছি, থাকব। আমি দল দেখে রাজনীতি করি না। মানুষ বিপদে সব সময় আমাকে পাবে। তিনি বলেন, ইতিমধ্যে বনগাঁর মানুষের কথা ভেবে ৪৪ লক্ষ টাকার চিকিৎসার সরঞ্জাম বনগাঁ হাসপাতালে দিয়েছি। এছাড়া বনগাঁর সমস্ত এলাকায় হ্যান্ড ওয়াশ, মাস্ক বিলি করেছি। আগামীতে আরও বড় পরিকল্পনা আছে আমার।

বনগাঁর শিমুল তলার বাসিন্দা শিবু সরকার বলেন, বিধায়ক বিশ্বজিৎ দাস বনগাঁর টোটচালক থেকে শুরু করে ভ্যান, অটো ও সব্জি বিক্রেতা ও বনগাঁ হাসপাতালের নার্স, আয়া থেকে শুরু করে সাফাই কর্মীদের নিজে হাতে মাস্ক ও হ্যান্ড ওয়াশ দিয়েছেন। তাছাড়া তিনি নিজের জীবন বিপন্ন করে এই দুর্দিনে মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছে, এতে বনগাঁর মানুষ খুশি।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here