২৪ ঘণ্টার মধ্যে ডিগবাজি খেয়ে কংগ্রেস থেকে পার্থ মিত্র আবার ফিরলেন তৃণমূলে

রাজেন রায়, আমাদের ভারত, কলকাতা, ২৮ নভেম্বর: তৃণমূলের প্রার্থী তালিকা প্রকাশ হওয়ার পরেই শুরু হয়ে গিয়েছে বিক্ষোভ। ইতিমধ্যেই তৃণমূল ছেড়ে কংগ্রেসে যোগদান করেছেন মমতাজ বেগম। একইসঙ্গে ৮ নম্বর ওয়ার্ডে কংগ্রেস প্রার্থী হিসেবে তৃণমূল কো-অর্ডিনেটর পার্থ মিত্রের নাম ঘোষণা করেছিল কংগ্রেস। কিন্তু রবিবার সকালে ফিরহাদ হাকিমের সঙ্গে দেখা করে পার্থ মিত্র দাবি করলেন, তিনি তৃণমূলেই আছেন। সংবাদমাধ্যম এবং কংগ্রেস তার নামে মিথ্যা প্রচার করছে।

৮ নম্বর ওয়ার্ডে তার জায়গায় এবারে নাম ঘোষণা করা হয়েছে শশী পাঁজার মেয়ে পূজা পাঁজার। শনিবার তাঁর দলত্যাগ প্রসঙ্গে পার্থ দাবি করেছিলেন ‘বড় খেলা’ আছে। জানান, “কংগ্রেসের হয়েই লড়ব। দশ বছর তৃণমূলের হয়ে কাজ করেছি। আমার এলাকায় এসে দেখে যান, কোনও খুঁত আছে কি না। ইট টু ইট দেখে যান। তৃণমূল কী জন্য টিকিট দিল না, আমি জানি না। সেই জন্য আমি কংগ্রেসের সঙ্গে যোগাযোগ করলাম। বলল, আমরা তোমাকে টিকিট দেব। যোগাযোগ করব।”

আর রবিবার মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিমকে সঙ্গে নিয়ে তিনিই জানালেন, তৃণমূলের সঙ্গেই রয়েছেন! রবিবার সকালে ফিরহাদ হাকিমের পাশে দাঁড়িয়ে পার্থর কথায়, “মমতা ব্যানার্জির নেতৃত্বে এবং ববি হাকিমের আশীর্বাদে আমি তৃণমূল কংগ্রেসে আছি”। তার পর তাঁর কংগ্রেসে যোগদানের দায়ভার যেন সংবাদমাধ্যমের, এমন দাবি করে পার্থ জানান, “প্রেস এসে আমার কাছে অনেক কথা বলে গেছে। কংগ্রেস থেকে এসেছিল, তারা বলছে যে বায়োডাটা দাও। আমি দিইনি। তারা আমার নামে মিথ্যে প্রচার করেছে। আমি টিকিট পাইনি কী হয়েছে, আমার দাদা আমার জন্য করেছিল, আমি এতেই খুশি।”

আর পার্থর পাশে দাঁড়িয়ে মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম বলেন, “ও তৃণমূল কংগ্রেসে আছে, তৃণমূল কংগ্রেসেই ছিল, এতে কোনও বিভ্রান্তির ব্যাপার নেই। ও তৃণমূল কংগ্রেসেই থাকবে। দলের অন্যান্য কাজ করবে।” তখন পাশ থেকে মাথা নেড়ে সমর্থন করতে দেখা যায় পার্থ মিত্রকে। আর এ দেখে সাধারণ মানুষের উপলব্ধি, সত্যিই তো, রাজনীতির কত রং!

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here