বর্ধমানে গোল্ড লোন সংস্থায় লুঠপাট, চললো গুলি

আমাদের ভারত, বর্ধমান, ১৭ জুলাই: একটা বেসরকারি গোল্ড লোন সংস্থা থেকে সোনা লুটপাট করে নিয়ে পালানোর সময় এক ব্যক্তি বাধা দিলে তাকে লক্ষ্য করে গুলি চালালো দুষ্কৃতীরা। ঘটনায় এক ব্যক্তি আহত হয়েছেন। তাকে বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ঘটনার জেরে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে বর্ধমান শহরের বিসি রোড এলাকায় খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যায় বর্ধমান থানার বিশাল পুলিশ বাহিনী। জেলা পুলিশ সুপার ভাস্কর মুখোপাধ্যায় ঘটনাস্থল খতিয়ে দেখেন। কয়েক লক্ষ টাকার সোনার গহনা লুটপাট হয়েছে বলে জানিয়েছে অর্থলগ্নি সংস্থাটি। যদিও লুটের কোনও ঘটনা ঘটেছে কি না বলতে পারেনি পুলিশ। পুলিশ জানিয়েছে সমস্ত কিছু খতিয়ে দেখেই এ বিষয়ে জানানো হবে।

স্থানীয় সূত্রে জানাগেছে, বর্ধমান শহরের বিসি রোড এলাকায় শুক্রবার দুপুর নাগাদ বর্ধমান শহরের একটি সোনা অর্থলগ্নি সংস্থায় একদল দুষ্কৃতী আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ে ঢুকে পড়ে। তারা ওই সংস্থার সমস্ত কর্মীদের মাথায় আগ্নেয়াস্ত্র ঠেকিয়ে ঘরের এক কোণে নীলডাউন করে বসিয়ে দেয়। বাধা দিতে গেলে মারধর করা হয়। এরপর তারা লক খুলে সোনা লুটপাট করতে থাকে। পালিয়ে যাওয়ার সময় এক ব্যক্তি বাধা দিলে তাকে লক্ষ্য করে গুলি চালায় দুষ্কৃতীরা।

আহত ব্যক্তি হীরামন মন্ডল বলেন, আমি ওই অর্থ লগ্নি সংস্থায় সিকিউরিটি গার্ডের কাজ করতাম। গত ডিসেম্বর মাসে আমার কাজ চলে যায়। এদিন এক বন্ধুর জন্য একটা লোন সংক্রান্ত কাজে অফিসে ঢুকছিলাম। সেই সময় এক যুবক সেখান থেকে বেরিয়ে যাচ্ছিল। হঠাৎ ওই যুবক আমায় রিভালবার ঠেকিয়ে ভিতরে ঠেলে ঢুকিয়ে দিয়ে পালানোর চেষ্টা করে। আমি তাকে ছুটে গিয়ে ধরে ফেললে সে আমায় লক্ষ্য করে গুলি চালায়। মোট তিন রাউন্ড গুলি ছোঁড়ে। আমার পিঠে গুলি লাগে। মাথায় পিছন দিক থেকে আগ্নেয়াস্ত্র দিয়ে আঘাত করে।

পূর্ব বর্ধমান জেলার পুলিশ সুপার ভাস্কর মুখোপাধ্যায় বলেন, বর্ধমানে একটা ক্রাইমের ঘটনা ঘটেছে। একজনকে গুলি করা হয়েছে। জেলা জুড়ে নাকা চেকিং শুরু হয়েছে।বদোষীদের যাতে দ্রুত ধরা যায় সেই চেষ্টাই করছে পুলিশ। পুলিশ ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here