পরিস্থিতি কি হাতের বাইরে যাচ্ছে? করোনা মোকাবিলায় ফের মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী

আমাদের ভারত, ২৪ জুলাই:করোনা মোকাবিলায় এর আগে বেশ কয়েকবার রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে বৈঠকে বসেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। কিন্তু বর্তমান পরিস্থিতি যথেষ্ট উদ্বেগজনক। প্রতিদিন নতুন নতুন রেকর্ড তৈরি হচ্ছে করোনায় আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যায়। দীর্ঘ লকডাউনের পথ পেরিয়ে আসার পরেও পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ আসছে না। এখন বিচ্ছিন্ন ভাবে বিভিন্ন রাজ্যে বিভিন্ন এলাকায় লকডাউন করা হচ্ছে পরিস্থিতি সামাল দিতে। গোটা দেশ জুড়ে লোকডাউন নেই। কিন্তু এই পরিস্থিতিতে কিভাবে করোনা বাড়বাড়ন্ত রোখা যায় সে বিষয়ে আলোচনা করতেই আবার একবার রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে বৈঠকে বসতে চলেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

জানা গেছে ২৭ জুলাই করোনা মোকাবিলায় বৈঠক হবে। সেই বৈঠকে উপস্থিত থাকবেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ইতিমধ্যেই রাজ্যে করোনা মোকাবিলায় সপ্তাহে দুদিন করে লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে। তাতে প্রথম দিন ভালো সাড়াও মিলেছে। কিন্তু গোটা দেশের একাধিক রাজ্যের মত লাগামহীন হয়ে উঠেছে রাজ্যের করোনা পরিস্থিতিও। তাই এবারের কঠিন পরিস্থিতিতে কেন্দ্র-রাজ্য মিলিত ভাবে মোকাবিলা করতে হবে বলেই সম্ভাবত অনুধাবন করেছেন মুখ্যমন্ত্রী। সেই জন্যেই ২৭ তারিখের বৈঠকে উপস্থিত থাকবেন বলে জানিয়েছেন বলে মনে করছেন ওয়াকিবহাল মহল।

কারণ এর আগে বহুবার বৈঠকে তাকে কিছু বলার সুযোগ দেওয়া হয় না এই অভিযোগে বৈঠক এড়িয়ে গিয়েছেন তিনি। বার বার ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন বৈঠক নিয়ে। অভিযোগ করেছেন রাজ্য বিজেপির ভূমিকা নিয়েও।

একদিকে রাজ্য বিজেপি যেমন মুখ্যমন্ত্রীর তথা রাজ্য সরকারের কাজ নিয়ে সরব হয়েছেন, তেমনি মুখ্যমন্ত্রীও প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে হওয়া বৈঠকে বলার সুযোগ পেলেই রাজ্য বিজেপির বিরুদ্ধে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন।

কিন্তু এখন পরিস্থিতি ভয়াবহতার দিকে এগোচ্ছে। গোটা দেশে মারাত্মক হারে সংক্রমণ বাড়ছে। মৃতের হার গড়ে ৭০০ হয়েছে দিনে। রাজ্যেও প্রায় ২২০০ জন আক্রান্ত হচ্ছেন প্রতিদিন। মৃত্যু হচ্ছে প্রায় ৩৫ জনের। এই পরিস্থিতিতে রাজনৈতিক মতো বিরোধ দূরে সরিয়ে দেশ ও রাজ্যের শাসক কুল একসাথে করোনা যুদ্ধে সামিল হয় কিনা তা বোঝা যাবে ২৭ জুলাইয়ের বৈঠকে।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here