বিপুল ধরপাকড় করেও তালতলা-যাদবপুরে গুজব সামলাতে হিমশিম অবস্থা পুলিশের

রাজেন রায়, কলকাতা, ২ মে: কথায় বলে, অলস মস্তিষ্ক শয়তানের বাসা। ঘরে বসে বসে বিপুল হারে চলছে গুজব। আর তাতে আতঙ্কিত হয়ে পড়ছেন শহরবাসী। যদিও কলকাতা পুলিশ এবং পশ্চিমবঙ্গ পুলিশ করোনা গুজব থামাতে ক্রমাগত ধরপাকড় চালিয়ে যাচ্ছে।
করোনা নিয়ে গুজব থামার কোনও লক্ষণই দেখা যাচ্ছে না। সাম্প্রতিক সময়ে করোনা সংক্রমণ নিয়ে তালতলা ও যাদবপুরে ভুয়ো মেসেজের জেরে পরিস্থিতি সামলাতে হিমশিম খেতে হচ্ছে পুলিশকে।

প্রসঙ্গত, শুক্রবার বিকেল থেকে হোয়াটসঅ্যাপে তালতলা এলাকা নিয়ে একটি মেসেজ ভাইরাল হয়। ওই মেসেজে বলা হয়, সেখানে নাকি পরিস্থিতি ভয়ংকর। করোনায় গত কয়েক দিনে কমপক্ষে ২৫ থেকে ৩০ জনের নাকি মৃত্যু হয়েছে। এই খবর নাকি চাপার চেষ্টা হচ্ছে। যারা আক্রান্ত, ১২ জনের নাম ঠিকানাও প্রকাশ করে তাদের মৃত দাবি করা হয়েছে। কলকাতা পুলিশের ডিসি সেন্ট্রাল ও তালতলা থানার ওসি-সহ সব পুলিশকর্মীকে এই এলাকায় প্রয়োজন ছাড়া টহল না দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। পুলিশমহল নাকি আতঙ্কে কাঁপছে। কিন্তু চাকরির কারণে মুখ ফুটে কিছু বলতে পারছেন না।

একই ভাবে শনিবার বিকেল থেকেও একটি মেসেজ ভাইরাল হয়েছে। যাদবপুর বিজয়গড়ে এক স্ত্রীরোগ বিশেষজ্ঞ করোনা আক্রান্ত। গোটা এলাকা সিল করে দেওয়া হয়েছে। এই মেসেজ দুটি ঘুরছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। আপাতত কলকাতা পুলিশ এই ২টি খবরই গুজব বলে উড়িয়ে দিয়েছে। পুলিশ জানিয়েছে যাদের নাম প্রকাশ করা হয়েছে তারা কেউই মারা যায়নি। আর যাদবপুরের কোনি চিকিৎসকও সংক্রামিত হয় লনি। উদ্দেশ্য প্রণোদিতভাবে মানুষকে ভয় পাওয়ানোর চেষ্টা করা হচ্ছে। কে বা কারা কি উদ্দেশ্যে এই গুজব ছড়াচ্ছে, তা জানতে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। ধরা পড়লে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেওয়া হবে, এমনটাই নির্দেশ দিয়েছেন পুলিশ কমিশনার।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here