নলহাটিতে অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করতে গিয়ে আক্রান্ত পুলিশ

আশিস মণ্ডল, রামপুরহাট, ৯ আগস্ট: অনেকটা সিনেমার কায়দায় ত্রিশ ঘণ্টা পর এক প্রাক্তন সেনাকর্মী ও তার পরিবারকে গ্রেফতার করল নলহাটি থানার পুলিশ। তাদের গ্রেফতার করতে গিয়ে বেশ কয়েকজন পুলিশ কর্মী জখম হয়েছে। তাদের প্রাথমিক চিকিৎসার পর ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।

ঘটনার সূত্রপাত, রবিবার সকালে। বীরভূমের নলহাটি থানার খাঁপুর গ্রামের বাসিন্দা প্রাক্তন সেনাকর্মী সৌকত আলির সঙ্গে গ্রামের বাসিন্দা আজিজুর রহমানের জমি নিয়ে বিবাদ চলছিল। আজিজুরের স্ত্রী নাজিরা বিবি বানিওড় গ্রাম পঞ্চায়েতের সদস্যা। রবিবার সকালে জমি নিয়ে বিবাদের জেরে সৌকত আজিজুরের উপর হামলা চালায়। লোহার শাবল দিয়ে তার হাত পা ভেঙ্গে দেওয়া হয়। মারধর করা হয় নাজিরাকেও। আশঙ্কাজনক অবস্থায় আজিজুরকে প্রথমে রামপুরহাট মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল ও পরে বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজে ভর্তি করা হয়েছে। এই ঘটনার পর নলহাটি থানার পুলিশ অভিযুক্ত প্রাক্তন সেনাকর্মীকে ধরতে গেলে তাদের পরিবারের সদস্যরা পুলিশকে বাধা দেয়। রাত পর্যন্ত পুলিশ তাকে গ্রেফতার করতে পারেনি।

সোমবার সকাল থেকে বিভিন্ন থানার পুলিশ গ্রাম ঘিরে ফেলে। অভিযুক্তর বাড়ির দিকে এগোতে শুরু করলে পুলিশকে লক্ষ্য করে ইট ও তির ছোঁড়ে। সারাদিন ধরে পুলিশ পরিকাঠামো তৈরি করে। বিকেলের দিকে বিশাল পুলিশবাহিনী বাড়ির দরজা ভেঙ্গে অভিযুক্ত সহ তার পরিবারের সদস্যদের গ্রেফতার করে। তবে এনিয়ে মুখ খুলতে চায়নি পুলিশের কোনও কর্তা। ছবি তুলতেও বাধা দেওয়া হয় সংবাদমাধ্যমকে।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here