সায়ন্তন বসু ও সাংসদ সুকান্ত মজুমদার সহ ২১ জনের বিরুদ্ধে বালুরঘাটে মামলা দায়ের পুলিশের, কিন্তু কেন!

আমাদের ভারত, বালুরঘাট, ১৪ জানুয়ারি: বালুরঘাটে ১৪৪ ধারা ভেঙ্গে মিছিল করায় সায়ন্তন বসু ও দেবজিত সরকার সহ ২১ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের জেলা পুলিশের। বৈষম্যমূলক আচরণের অভিযোগ সাংসদের। অভিযোগ দায়ের হয়েছে অনুমতি না নিয়ে মাইক বাজানোর ঘটনাতেও। বিজেপির রাজ্য সম্পাদক সায়ন্তন বসু, রাজ্য যুব সভাপতি দেবজিৎ সরকার, বালুরঘাটের সাংসদ সুকান্ত মজুমদার, দক্ষিণ দিনাজপুরের জেলা বিজেপি সভাপতি বিনয় বর্মন সহ ২১ জন নেতাকর্মীর নামে ওই অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে বলে পুলিশ সূত্রের খবর।

মঙ্গলবার পুলিশ প্রশাসনের তরফে নেওয়া এমন ঘটনায় আলোড়ন পড়েছে গোটা জেলায়। যা সামনে আসতেই ঘটনা নিয়ে পুলিশের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগড়ে দিয়েছেন বালুরঘাটের সাংসদ সুকান্ত মজুমদার। সাংসদের অভিযোগ, রাজ্য সভা ও লোকসভায় পাশ হওয়া সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের বিরোধিতা করে সোমবার শহর জুড়ে মাইক বাজিয়েছে পুলিশ প্রশাসন। সংবিধান ভেঙে পুলিশের এমন কর্মকান্ড নিয়েও সরব হয়েছেন সাংসদ। একই সাথে এদিন তৃণমূলের মিছিল নিয়েও পুলিশকে কটাক্ষ করে সাংসদ বলেন, তৃণমূলের মিছিলে ১৪৪ ধারা নয়। আর বিজেপির মিছিল হলেই সেখানে ১৪৪ ধারা জারি। পুলিশ এই ঘটনা নিয়ে বৈষম্যমূলক আচরণ করছে।

বালুরঘাটের সাংসদ সুকান্ত মজুমদার জানিয়েছেন, পুলিশ প্রশাসন বিজেপির সাথে বৈষম্যমূলক আচরণ করছে। বিজেপির মিছিল আটকে দিতে জারি করা হয়েছিল ১৪৪ ধারা। কিন্তু শাসকদলের মিছিলে কোনও বাধা নেই। একই সাথে সোমবার শহরে সংবিধান ভেঙে পুলিশ মাইক বাজিয়েছে।

ডিএসপি ধীমান মিত্র জানিয়েছেন, ১৪৪ ধারা ভেঙে মিছিল করায় আইনানুগ ব্যবস্থা নিচ্ছে পুলিশ।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here