স্যোশাল মিডিয়ায় প্রধানমন্ত্রী ও বিজেপি বিরোধী কথা বলায় শিলচরের অধ্যাপকের গ্রেপ্তারি ঘিরে রাজনৈতিক চাপানউতোর

8

আমাদের ভারত, মেদিনীপুর, ২৯ ফেব্রুয়ারি:
স্যোশাল মিডিয়ায় প্রধানমন্ত্রী, আরএসএস ও বিজেপি বিরোধী কথা বলায় অসমের শিলচরের এক অধ্যাপকের গ্রেপ্তারি ঘিরে শুরু হয়েছে রাজনৈতিক চাপানউতোর।
শনিবার খড়্গপুরে এক দলীয় কর্মসূচিতে যোগ দিতে এসে বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেন, ওই ব্যক্তিকে শুধু গ্রেপ্তার নয় তার যোগ্য শাস্তি পাওয়া উচিত। ২৪ কোটি মানুষের ভোট পেয়ে প্রধানমন্ত্রী হয়েছেন নরেন্দ্র মোদী। তাঁকে অপমান করার স্পর্ধা কে দিয়েছে ওনাকে?
দিল্লির ঘটনাকে গোধরার সঙ্গে তুলনা করেছেন। ভাবতে লজ্জা করে যে উনি একজন শিক্ষক। উনি শিক্ষক সমাজের কলঙ্ক। শুধু গ্রেপ্তার নয় ওই ব্যক্তি যাতে উচিত শিক্ষা পায় সেটাও দেখতে হবে।

শনিবার এই প্রসঙ্গে মেদিনীপুরে এসে রাজ্যের মন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য বলেন, দিলীপ ঘোষকেই আগে গ্রেপ্তার করা উচিত। উনি প্রতিদিনই এরকম অনেক উল্টোপাল্টা কথা বলেন। তবে ওনার শাস্তি হবে না কেন?
মেদিনীপুরে প্রদ্যোত স্মৃতি সদনে মহিলা তৃণমূলের কর্মী সম্মেলনে যোগ দিয়ে মন্ত্রী বলেন, কন্যাশ্রী, রূপশ্রী প্রকল্পের জন্য রাজ্য সরকার হাজার কোটি টাকা বরাদ্দ করেছে। আর কেন্দ্র সরকার বেটি বাঁচাও, বেটি পড়াও এর জন্য মাত্র একশ কোটি টাকা বরাদ্দ করেছে। এর থেকেই বোঝা যাচ্ছে ওদের সদিচ্ছা কতটা আন্তরিক। এদিনের সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন বিধায়ক শিউলী সাহা, সভাধিপতি উত্তরা সিংহ হাজরা।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here