“এক বিশ্ব এক স্বাস্থ্য” নীতির আহ্বান প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর

আমাদের ভারত, ১৩ জুন:
করোনা মোকাবিলায় গোটা বিশ্বকে একজোট হওয়ার ডাক দিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। জি ৭ সম্মেলনের মতো আন্তর্জাতিক মঞ্চ থেকে এই আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। মোদীর এই আহ্বানকে সমর্থন করেছেন জার্মানির রাষ্ট্র প্রধান।

মোদী বলেন, জি-৭ গোষ্ঠী ভুক্ত দেশগুলিকে একত্রিত হতে হবে। এক বিশ্ব এক স্বাস্থ্য নীতির কথার উল্লেখ করেন তিনি। শুধু করোনার মোকাবিলায় নয় যে কোনো স্বাস্থ্য সংক্রান্ত জরুরি অবস্থায় গোটা বিশ্বকে এক ছাতার তলায় এসে কাজ করার আবেদন জানান ভারতের প্রধানমন্ত্রী। শনিবার ভার্চুয়ালি জি৭ সম্মেলনে যোগ দেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। সেখানে তিনি বলেন, করোনার মত মহামারী বা অন্য যে কোনও মহামারীর জন্য প্রস্তুত থাকতে হবে। তাই “এক বিশ্ব এক স্বাস্থ্যে”র মত নীতি অবলম্বন করে চলা উচিত। বিশ্বজুড়ে উন্নতমানের স্বাস্থ্য পরিকাঠামো গড়ে তোলার লক্ষ্যে তিনি এই নীতি প্রয়োগের প্রস্তাব রেখেছেন।
মোদীর এই বার্তায় একমত জার্মানির চ্যান্সেলর অ্যাঞ্জেলা মার্কেল।

সম্মেলনে ভারত সাফল্যের সঙ্গে করোনার মোকাবিলা করছে বলেও জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। ভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউয়ের সময় যেসব দেশ ভারতকে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছে তাদের ধন্যবাদ জানান প্রধানমন্ত্রী। একই সঙ্গে আন্তর্জাতিক মঞ্চে মোদী বলেন, বিশ্বের বিভিন্ন দেশকেও সাহায্য করেছে ভারত। প্রত্যেকের কাছেই ভারতের সাহায্যের হাত পৌঁছেছে। পারস্পরিক সম্পর্ক রক্ষা ও সহযোগিতার ভিত্তিতে করোনা মোকাবিলা সহজ হবে বলেও মত প্রকাশ করেন তিনি। সারা বিশ্বের মানুষকে এজন্য একজোট হতে হবে বলেও জানিয়েছেন। করোনা ভাইরাস বিশ্বের কাছে চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিয়েছে সেই লড়াইয়ে জেতার আহ্বান জানান মোদী।

তিনি বলেন, ডিজিটাল মাধ্যমকে কাজে লাগিয়ে ভারত করোনার বিরুদ্ধে লড়াই করছে। টিকাকরণের ক্ষেত্রে কাজে লাগানো হয়েছে ডিজিটাল মাধ্যমকে। তাতে সাফল্য এসেছে। এই ব্যাপারে বিভিন্ন উন্নয়নশীল দেশের সঙ্গে নিজের অভিজ্ঞতা ভাগ করে নিতে চায় ভারত।

ইংল্যান্ডের অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে আয়োজন করা হয়েছে জি-৭ সম্মেলন। ভারত তাতে অতিথি দেশ হিসেবে যোগদান করেছে। ভারতের মতো অতিথি দেশ হিসেবে যোগদান করেছে দক্ষিণ কোরিয়া, অস্ট্রেলিয়া, দক্ষিণ আফ্রিকার রাষ্ট্রপ্রধানরা। এরা প্রত্যেকেই ভার্চুয়ালি যোগদান করেছে। মার্কিন প্রেসিডেন্ট এই সম্মেলনে যোগ দিতে ব্রিটেনে গিয়েছেন। কানাডা, জাপান, ফ্রান্স,জার্মানি, ইতালির প্রধানমন্ত্রী সশরীরে উপস্থিত হয়েছেন জি সেভেন সন্মেলনে।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here