পরিযায়ী শ্রমিকের মৃতদেহ নিয়ে উত্তেজনা

আমাদের ভারত, মেদিনীপুর, ২৬ মে: মহারাষ্ট্রে কাজ করতে যাওয়া এক যুবকের মৃতদেহ গ্রামে ঢোকানো এবং দাহ করা নিয়ে পশ্চিম মেদিনীপুরের পিংলাতে ব্যাপক উত্তেজনা ছড়িয়েছে।

কাজের সূত্রে পিংলা থানার নাড়াথা গ্রামের যুবক রাজু জানা পাঁচ বছর আগে  কাজের সূত্রে মুম্বাই যান। সেখানে পাঁচ বছর ধরে তিনি তামার কাজ করতেন। গত ১৮ মে তার বাড়ি ফেরার কথা ছিল, কিন্তু সেদিনই তার মৃত্যুর খবর বাড়িতে পৌঁছায়। গতকাল রাজু জানার মৃতদেহ নিয়ে এলে এলাকাবাসীরা তা গ্রামে ঢোকাতে বাধা দেন। এরপর বাড়ির লোকজন মৃতদেহটি দাহ করার জন্য মেদিনীপুর নিয়ে যান। কিন্তু সেখানেও রাজুর দেহ দাহ করার ক্ষেত্রে তাদের বাধার মুখে পড়তে হয়। ফলে গতকাল রাতে পরিবারের সদস্যরা পুলিশের দ্বারস্থ হন। কিন্তু পুলিশও সমস্যার সমাধান করতে পারেনি। আজ সকালে জেলা পুলিশ প্রশাসন ওই গ্রামবাসীদের ডেকে বলে রাজুর করোনা হয়নি। আগেই তার সব রকম পরীক্ষা করা হয়েছিল। পরীক্ষার কাগজপত্র সমস্ত কিছু রয়েছে। গ্রামবাসীরা পুলিশের সমস্ত কথা শোনার  এবং কাগজপত্র দেখার পর রাজুর দেহ গ্রাম থেকে দু কিলোমিটার দূরে একটি নদীর পাশে দাহ করতে দিতে রাজি হন।

জেলার পুলিশ সুপার দিনেশ কুমার জানিয়েছেন, সন্ধ্যেয় মৃতদেহটি পোড়ানোর সময় সেখানে যাতে পুলিশ উপস্থিত থাকে সেজন্য পিংলা থানার ওসিকে বলা হয়েছে।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here