ভগবানের রহস্য উন্মোচন করবেন! পদত্যাগপত্র জমা দিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের রসায়নের অধ্যাপক

ভগবানের রহস্য উন্মোচন করবেন! পদত্যাগপত্র জমা দিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের রসায়নের অধ্যাপক

আমাদের ভারত, উত্তর দিনাজপুর, ১০ আগস্ট: ভগবানের রহস্য উন্মোচন করতে চেয়ে অধ্যাপকের চাকুরি ছাড়ার ইচ্ছে রায়গঞ্জ বিশ্ববিদ্যালয়ের রসায়নের অধ্যাপক বিদ্যুৎ কুমার সাঁতরার। অধ্যাপকের এই সিদ্ধান্তে হতবাক বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

কোথাও যেন আধ্যাত্মিকতার সামনে নেমে ব্যাকফুটে চলে গেল বিজ্ঞান। রায়গঞ্জ বিশ্ববিদ্যালয়ের রসায়ন বিভাগের অধ্যাপক বিদ্যুৎ কুমার সাঁতরা’র সম্প্রতি ভিসির কাছে দেওয়া পদত্যাগ পত্রের আসল রহস্য সামনে আসতেই এই প্রশ্নই ঘুরপাক খাচ্ছে রায়গঞ্জ শহরবাসীর মনে। আধাত্মিকতার জগতে প্রবেশ করার ইচ্ছা ব্যক্ত করে ইতিমধ্যেই অধ্যাপনার কাজে ইতি টানতে চাইছেন এই অধ্যাপক। ভিনরাজ্যের একটি আধ্যাত্মিক সংগঠনের মাধ্যমে আধ্যাত্মিকতার জগতে প্রবেশের ইচ্ছা রায়গঞ্জ বিশ্ববিদ্যালয়ের রসায়নের অধ্যাপক বিদ্যুৎবাবুর। তাঁর কথায়, সেই জগতের নানান জ্ঞান অর্জন করতেই তিনি অধ্যাপনার কাজ ছেড়ে দিতে চাইছেন। সবমিলিয়ে বিদ্যুৎবাবুর পদত্যাগের সিদ্ধান্ত সামনে আসতেই নানা মহলে নানা জল্পনা কল্পনার সৃষ্টি হয়েছে।

রায়গঞ্জ বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম কন্ট্রোলার বিদ্যুৎ কুমার সাঁতরা দীর্ঘ ১২ বছর ধরে রসায়ন বিভাগে অধ্যাপনার কাজ করে আসছেন। সম্প্রতি তিনি আর এই অধ্যাপনার প্রথাগত শিক্ষা জগতে না থেকে আধ্যাত্মিক জগতের শিক্ষা অর্জন করতে ব্রতী হয়েছেন। তাঁর কথায় ভগবান শিব আবার ইহজগতে পদার্পণ করেছেন৷ তাঁকে বুঝতে গেলে সময় লাগবে। তাই অধ্যাপনার কাজ থেকে অব্যাহতি চাইছেন তিনি। এই বিষয়ে বিদ্যুৎবাবুর সাফ জবাব, আমি প্রথাগত শিক্ষার বাইরে গিয়ে আধ্যাত্মিক জগতের শিক্ষায় শিক্ষিত হতে চাইছি। আমার পারিপার্শ্বিক যারা ওই শিক্ষায় শিক্ষিত হতে চান তাদের শিক্ষাদানের পাশাপাশি তাদের থেকেও জ্ঞান অর্জন করতে চাইছি। এই বিষয়ে শিক্ষা অর্জন করতে অনেকটা সময় প্রয়োজন, তাই অধ্যাপনার কাজ থেকে অব্যাহতি চেয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের কাছে লিখিত আবেদন করেছি।
বিদ্যুৎ কুমার সাঁতরা’র পদত্যাগপত্র তিনি পেয়েছেন বলে জানালেন রায়গঞ্জ বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস চ্যান্সেলর অনিল ভুঁইমালী। তিনি বলেন, বিষয়টি নিয়ে স্ক্রুটিনি করা হয়েছে। তাঁর সাথে কথাও বলা হয়েছে। যদি উনি আধ্যাত্মিক জগতের শিক্ষা লাভের জন্য ছুটি চান তাহলে সেই বিষয় নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্টারের সাথে আলোচনা করে জানানো হবে। তবে তাঁর পদত্যাগ পত্র বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ গ্রহন করেনি।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

fifteen − six =