বিজেপির সাংগঠনিক পদ থেকে সুব্রত চ্যাটার্জিকে সরিয়ে বিদ্যুৎ মুখার্জিকে দায়িত্ব দেওয়ার প্রস্তাব সংঘের বৈঠকে

আমাদের ভারত, কলকাতা, ২৪ সেপ্টেম্বর: বিজেপির সংগঠন সম্পাদকের পদ থেকে সুব্রত চ্যাটার্জিকে সরিয়ে দেওয়ার প্রস্তাব উঠল সংঘের কার্যকারিনী বৈঠকে। সুব্রত চ্যাটার্জিকে সি
সরিয়ে আরএসএসের প্রাক্তন প্রান্ত প্রচারক বিদ্যুৎ মুখার্জিকে বিজেপির সংগঠন সম্পাদক করার প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে বলে বিশ্বস্ত সূত্রে জানা গেছে।

আরএসএসের সরসঙ্ঘচালক মোহন ভাগবত কলকাতায় এসেছেন কার্যকারী বৈঠকে যোগ দিতে। দুদিন ধরে এই বৈঠক চলছে। সেই বৈঠকের মাঝেই সুব্রত চ্যাটার্জিকে সরিয়ে বিদ্যুৎ মুখার্জিকে বিজেপির সংগঠন সম্পাদক করার জন্য প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে বল বিশ্বস্ত সূত্রে জানা গেছে।

বিদ্যুৎ মুখার্জি একসময় সংঘের দক্ষিণবঙ্গের প্রান্ত প্রচারক ছিলেন। বছর দেড়েক ধরে তিনি সেই দায়িত্ব থেকে মুক্ত হয়ে হয়েছেন। ইদানীং তিনি বিজেপিতে যোগ দেওয়ার ইচ্ছা প্রকাশ করেছেন বলে ঘনিষ্ঠ মহল সূত্রে জানা গেছে। এজন্য তিনি তাঁর ঘনিষ্ঠ মহলে বেশ কিছুদিন ধরেই প্রচার চালাচ্ছিলেন। তাঁর লক্ষ্য বিজেপির সংগঠন সম্পাদকের পদ।
বিজেপির মধ্যেই সুব্রত চ্যাটার্জির কার্যকলাপ নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। সম্প্রতি দিল্লিতেও বিভিন্ন সাংসদ অভিযোগ করেছিলেন সুব্রত চ্যাটার্জি দিলীপ ঘোষ দলের সমস্ত ক্ষমতা কুক্ষিগত করে রেখেছেন। বিভিন্ন জেলাতেও বিজেপি নেতাদের মধ্যে ক্ষোভ বিক্ষোভ রয়েছে। এই অবস্থায় সুব্রত চ্যাটার্জিকে সাংগঠনিক পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হতে পারে বলে দলের মধ্যেই বেশ কয়েকমাস ধরে কানাঘুষো শোনা যাচ্ছিল। কিন্তু বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব আগামী বিধানসভা নির্বাচনের দিকে তাকিয়ে এখনই তাঁকে সরাতে রাজি ছিলেন না।

তা সত্ত্বেও একটা মহল মনে করছিল মোহন ভাগবতের বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হতে পারে। সুব্রত চ্যাটার্জিকে বিজেপি থেকে সরিয়ে নেওয়া হবে এবং সেখানে অন্য কাউকে দায়িত্ব দেওয়া হবে। উল্লেখ্য বিজেপির এই সাংগঠনিক পদে বরাবরই সংঘের প্রচারকদের দায়িত্বে দেখা যায়। তাই সুব্রত চ্যাটার্জিকে সরানো হলে সংঘের কোনও প্রচারক কে দায়িত্ব দেওয়া হতে পারে। সংঘের ঘনিষ্ঠ সূত্রে জানা গেছে, এই সুযোগটাকে কাজে লাগাতে চেয়েছেন বিদ্যুৎ মুখার্জি। সংঘের কার্যকর্তাদের দুদিনের বৈঠকে তার পক্ষে প্রস্তাব রাখা প্রস্তাব রাখা হয়। বলা হয় সুব্রত চ্যাটার্জি যেহেতু সামলাতে পারছেন না তাই তাঁর পরিবর্তে বিদ্যুৎ মুখার্জিকে সংগঠন সম্পাদক করা হোক তবে এই প্রস্তাব মানা হবে কিনা তা অবশ্য জানা যায়নি। এই বৈঠকে মোহন ভাগবত ছাড়াও রয়েছেন সংঘের সহ সরকার্যবাহ ভাগাইয়াজি, অখিল ভারতীয় কার্যকর্তা সুনীল পদ গোস্বামী এবং ক্ষেত্র প্রচারক প্রদীপ জোশি উপস্থিত ছিলেন।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here