ঘোষণাই সার, বিনামূল্যে রেশন না পেয়ে লকডাউন ভেঙে বিক্ষোভ বালুরঘাটে

আমাদের ভারত, বালুরঘাট, ১ এপ্রিল: সরকারি ঘোষণার পরেও বিনামূল্যে রেশন না পেয়ে বিক্ষোভ বালুরঘাটে। লকডাউন ভেঙে কয়েকশো মানুষের সমাগমে উত্তেজনা প্রশাসনিক ভবন চত্বরে। বাড়ি বাড়ি কুপন পৌছানোর আশ্বাস খাদ্য নিয়ামকের। বুধবার সকালে লকডাউন ভেঙে বালুরঘাট শহর লাগোয়া বেশ কিছু গ্রাম থেকে কয়েকশো বাসিন্দা এসে বিক্ষোভ প্রদর্শন করেন। ঘটনাকে ঘিরে তুমুল উত্তেজনা ছড়ায় প্রশাসনিক ভবন চত্বর এলাকায়। ডিজিটাল কার্ড না থাকা বাসিন্দারাই এদিন এই বিক্ষোভ প্রদর্শন করেছেন। যদিও পরে এইসব উপভোক্তাদের কুপন দেওয়ার আশ্বাস দিয়েই পরিস্থিতি স্বাভাবিক করেন প্রশাসনিক আধিকারিকরা।

বিক্ষোভকারীদের অভিযোগ, করোনার এই দুঃসময়ে কেউই কাজে যেতে পারছেন না। পরিবার নিয়ে ঠিকমতো খাবার জোগাড় করতে হিমসিম খাচ্ছেন প্রায় সকলেই। সরকারের ঘোষণার পরেও রেশন দোকানে কেন তাঁদের রেশন দেওয়া হচ্ছে না তা নিয়েই প্রশ্ন তুলে এদিন রাস্তায় নেমেছেন সকলে।
লকডাউন পরিস্থিতির মধ্যে সাধারণ জনজীবন স্বাভাবিক রাখতে বিনামূল্যে রেশন দেওয়ার কথা ঘোষণা করেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী। জেলা শাসকদের সেই নির্দেশিকা দেওয়ার পরেই প্রশাসনের তরফে তা মাইক দিয়ে প্রচার চালানো হয়। আর যার পরেই এদিন বালুরঘাট শহর লাগোয়া চক্‌ভৃগু, ডাকরা, ময়ামারি প্রভৃতি গ্রামগুলির বাসিন্দারা রেশন দোকানে ভিড় জমান বিনামূল্যে দেওয়া রেশন নিতে। ডিজিটাল কার্ড না থাকা গ্রাহকদের বিনা পয়সায় রেশন দিতে ডিলাররা অস্বীকার করতেই ক্ষোভে ফেটে পড়েন বাসিন্দারা। যার পরেই ঘটনার প্রতিবাদ জানিয়ে জেলাশাসককের দফতর ও খাদ্য দফতরের সামনে এসে তুমুল বিক্ষোভ প্রদর্শন করেন কয়েকশো গ্রাহকেরা। লকডাউন ভেঙে প্রশাসনিক ভবন চত্বরে কয়েকশো মানুষের সমাগমে উত্তেজনা ছড়ায় এলাকায়।

হরিশ্চন্দ্র হালদার, রামকৃষ্ণ সরকার ও লক্ষ্মী পালরা জানিয়েছেন, লকডাউনের জন্য তাঁদের কাজ কর্ম বন্ধ হয়েছে। রেশন দোকানে গেলে তাঁদের বলা হয়েছে কুপন দেখানো না হলে পয়সা দিয়ে খাদ্য সামগ্রী নিতে হবে। যদি পয়সা দিয়েই নিতে হয় তাহলে তাদের কাজ করতে দেওয়া হোক। কুপন কেন আগে থেকে দেওয়া হল না তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন প্রত্যেকেই। এদিন তালাবন্ধ খাদ্যদপ্তরে এসে কুপন না পেয়েই ক্ষোভে ফেটে পড়েছেন সকলেই।

জেলা খাদ্য নিয়ামক জয়ন্ত কুমার রায় জানিয়েছেন, গতকাল মাঝ রাতে রাজ্য থেকে জেলার ১ লক্ষ ৪১ হাজার ১৩৯ জনের তালিকা পেয়েছি। কুপন গুলি বাড়ি বাড়ি গিয়ে তাদের হাতে তুলে দেওয়া হবে। আগামী ১০ তারিখের পর থেকে সেই কুপনের মধ্যমে ৬ মাস বিনামূল্যে রেশন দেওয়া হবে।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here