কেন্দ্রীয় সরকারের বিরুদ্ধে বঞ্চনার অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে ফিরহাদকে পাল্টা প্রশ্ন রাহুলের

জে মাহাতো, আমাদের ভারত, মেদিনীপুর, ২৮ জুন: সম্প্রতি কেন্দ্রীয় সরকারের বঞ্চনার অভিযোগ তুলেছিলেন ফিরহাদ হাকিম। ফিরহাদ হাকিমের তোলা সেই অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে মেদিনীপুর শহরে এক সাংবাদিক সম্মেলনে রাহুল সিনহা বলেন, কোনো বঞ্চনা হচ্ছে না। তৃণমূল নেতাদের উদ্দেশ্যে পাল্টা প্রশ্ন ছুঁড়ে তিনি বলেন, বাংলার কৃষকরা কেন্দ্রীয় সরকারের প্রধানমন্ত্রী কৃষক সম্মাননিধি প্রকল্পের ৬ হাজার টাকা কেন পেল না? পাঁচ লক্ষ টাকার চিকিৎসা সুবিধাযুক্ত আয়ুষ্মান প্রকল্প কেন চালু করতে দেওয়া হয়নি তার জবাব আগে দিক ফিরহাদ হাকিমরা।

রাহুল সিনহা অভিযোগ করেন, কেন্দ্রীয় সরকারের যে প্রকল্পে তৃণমূল নেতাদের কাটমানি খাওয়ার জায়গা নেই, সেইসব প্রকল্প বাংলায় চালু করেনি এই সরকার। ভার্চুয়াল মিটিংয়েই তৃণমূলের মাথা খারাপ হয়ে গিয়েছে। যে পরিমাণ মানুষ ভার্চুয়াল সভা দেখছে তাতে তৃণমূল বুঝে গিয়েছে যে তাদের বিনাশ আসন্ন। তাই তারা নানাভাবে হুমকি দিচ্ছে। বিজেপিকে রাস্তায় নামতে বাধা দিচ্ছে করোনাকে অজুহাত করে। অথচ তৃণমূল মিছিল মিটিং সব করছে করোনা বিধিকে উপেক্ষা করেই। এই দ্বিচারিতা মানুষ মেনে নেবে না। মেদিনীপুরে এক দলীয় কর্মসূচিতে এসে তৃণমূলের এভাবেই সমালোচনা করেছেন বিজেপি রাজ্য নেতা রাহুল সিনহা। লকডাউন করা ও শিথিল করা নিয়ে সরকারের কোনও পরিকল্পনা নেই বলেও অভিযোগ করেছেন তিনি। 

আমফান ত্রানে দুর্নীতি ও দলবাজি নিয়েও একাধিক অভিযোগ করেছেন রাহুলবাবু। তিনি বলেছেন, তৃণমূলের দলীয় নেতারা নিজেরাই ত্রাণের টাকা লুঠ করেছেন। চাপে পড়ে অনেকে এখন তা ফেরতও দিচ্ছেন। সরকারি নির্দেশিকায় বিডি অফিসগুলিতে ত্রাণ প্রাপকদের তালিকা কেন টাঙানোর নির্দেশ নেই তা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন তিনি। কৃষক, পরিযায়ী শ্রমিক থেকে শুরু করে তৃণমূল সাধারণ মানুষকে ধোকা দিচ্ছে বলেও অভিযোগ করেছেন তিনি।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here