ক্যান্সার আক্রান্ত রোগীদের জন্য নিজের লম্বা চুল কেটে দান করলেন রায়গঞ্জ বিশ্ববিদ্যালয়ের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রী জয়শ্রী দেবনাথ

68

আমাদের ভারত, উত্তর দিনাজপুর, ৯ ফেব্রুয়ারি: লম্বা ঘন চুল সব মেয়েরই পছন্দের। কথায় বলে, মেয়েদের সৌন্দর্যের আসল রহস্যই নাকি লম্বা, ঘন চুল। সেই চুলই কেউ স্বেচ্ছায় কেটে অন্যকে দান করতে পারেন, সে কথা হয়তো সত্যিই চট করে কোনও মেয়ের পক্ষেই ভাবাটা কঠিন। তাও আবার একজন সুশ্রী যুবতী তরুণীর কাছে। আর সেই কাজটাই করলেন রায়গঞ্জের বাসিন্দা রায়গঞ্জ বিশ্ববিদ্যালয়ের সংস্কৃতের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রী বছর ২০-র জয়শ্রী দেবনাথ ক্যান্সার আক্রান্ত নারীদের পাশে দাঁড়াতে। ক্যান্সার রোগীর জন্য অবলীলায় তার নিজের লম্বা চুল কেটে দান করলেন ক্যান্সার পীড়িতদের উইগ তৈরির জন্য। ইতিমধ্যেই মুম্বাইয়ের “মদত ট্রাস্ট” স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার সাথে যোগাযোগ করে তাঁর কাটা চুল ক্যান্সার আক্রান্তদের সেবায় নিয়োজিত করছেন তিনি।

ক্যান্সার আক্রান্ত নারীদের কেমোথেরাপি করার জন্য তাদের মাথার চুল সম্পূর্ণভাবে উঠে বা ঝরে যায়। ফলে শারীরিক ভাবে সুস্থ হয়ে উঠলেও মাথায় চুল না থাকায় নিজেদের সৌন্দর্যের বিকাশে বাধা হয়ে দাঁড়ায়। আর চুল কিনে তা লাগানোটা যথেষ্ট ব্যায়সাধ্য ব্যাপার হওয়ায় অনেকেই তা পারেন না। সেইসব ক্যান্সার আক্রান্ত মহিলাদের নিজের চুল দান করে তাদের সাজিয়ে তোলার উদ্যোগ নিয়েছে কলেজ ছাত্রী জয়শ্রী। প্রয়াস ক্ষুদ্র হলেও তার এই মহতী উদ্যোগে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছে “ফিনফিড” নামে একটি স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা। ওই স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার অন্যতম সদস্যাও জয়শ্রী। নিজের রূপশ্রী মেয়ের এই সুন্দর বহরের চুল কেটে ক্যান্সার আক্রান্তদের কাছে পৌঁছে দেওয়ার উদ্যোগকে সর্বতোভাবে সমর্থন করেছে জয়শ্রীর মা জয়ন্তী দেবী। মেয়ের এই মহতী কাজে তিনি গর্বিত বোধ করছেন। চুল দাতা জয়শ্রী জানালো একজন ক্যান্সার রোগীকে হলেও ব্যায়বহুল চিকিৎসার পরে হীনমন্যতায় ভোগা কোনও এক এক মহিলার বাকি জীবনটা কাটবে হাসিতে খুশীতে এটা ভেবেই নিজের খুব আনন্দ হচ্ছে। ছোট থেকেই ইচ্ছে ছিল মানুষের জন্য কিছু করার। আজ তা করতে পেরে খুবই ভালো লাগছে তার।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here