পুরুলিয়ায় টানা তিন দিন রেল অবরোধ, নবান্নতে গিয়ে আলোচনা করার প্রস্তাব আদিবাসী কুড়মি সমাজকে

সাথী দাস, পুরুলিয়া, ২১ সেপ্টেম্বর: আলোচনা নিস্ফল। নিজেদের ঘোষিত দাবিতে অনড় রইল আদিবাসী কুড়মি সমাজ। আজ পুরুলিয়া জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে লিখিতভাবে ‘নবান্ন ‘তে গিয়ে আলোচনা করার প্রস্তাব দেওয়া হয় আন্দোলনরত ‘আদিবাসী কুড়মি সমাজ’কে। যদিও সেই প্রস্তাবে ইতিবাচক সাড়া না দিয়ে রেল রোকো কর্মসূচি জারি রাখল তারা।

এদিকে টানা তিন দিন রেল অবরোধের জেরে চরম দুর্ভোগে পড়েছেন সাধারণ মানুষ ও যাত্রীরা। নিত্য যাত্রী, যাত্রীবাহী ট্রেন না চলাচল করায় আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়েছেন হকাররাও। আজও লাইনে বসে থেকে দাবি থেকে সরল না আদিবাসী কুড়মি সমাজ। আন্দোলন জারি থাকল আজও। আদিবাসী সমাজের কয়েকশ লোকজন লাইনের উপরেই বসে থাকেন। কুড়মি জাতিকে তপশিলি উপজাতি হিসেবে তালিকাভুক্ত করা, কুড়মালি ভাষাকে সংবিধানের অষ্টম তফসিলের অন্তর্ভুক্ত করা, সারণা ধর্মের কোড চালু করার দাবিতে অনির্দিষ্টকালের জন্য রেল অবরোধ কর্মসূচি পালন করছে আদিবাসী কুড়মি সমাজ। দক্ষিণ পূর্ব রেলের আদ্রা ডিভিশনের পুরুলিয়া আদ্রা শাখার কুস্তাউর স্টেশনে মঙ্গলবার থেকে টানা তিনদিন রেল অবরোধ চলছে। আজ দুপুরে দু দফায় প্রশাসনিক আধিকারিক, পুলিশ, রেল পুলিশ আদিবাসী কুড়মি সমাজের প্রতিনিধিদের নিয়ে ত্রিপাক্ষিক বৈঠক করেন। সমাধান হয়নি।

আদিবাসী সমাজের নেতা অজিত প্রসাদ মাহাতো বলেন, “কেন্দ্রকে পাঠানো সিআরআই রিপোর্টের প্রতিলিপি হাতে না পেলে আন্দোলন চলবেই। কিছু মানুষের অসুবিধা হচ্ছে ঠিকই কিন্তু একটা জাতি যুগ যুগ ধরে বঞ্চিত হয়ে আসবে এটা হতে পারে না।”

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here