“জামাত ফেরতদের চিকিৎসা নয় ওদের গুলি করা উচিত”

আমাদের ভারত,৪ এপ্রিল:নিজামুদ্দিনের ঘটনা নিয়ে এবার বিতর্কিত মন্তব্য করেছেন মহারাষ্ট্রের নবনির্মাণ সেনাপ্রধান রাজ ঠাকরে। সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলার সময় তিনি বলেন, “দিল্লির নিজামুদ্দিনের তাবলিগি জামাত ফেরতের চিকিৎসায় করা উচিত নয় ওদের গুলি করে মারা উচিত”।

সম্প্রতি মার্চের মাঝামাঝি দিল্লির নিজামুদ্দিনে তাবলিগি জামাতের একটি সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। সেখানে যোগ দেন দেশের দুই হাজারের ঊ মানুষ। ওই সম্মেলনে সৌদি আরব, ইন্দোনেশিয়া, মালয়েশিয়া, কাজাখস্তান, চীন,বাংলাদেশ সড় একাধিক দেশের প্রতিনিধিরা এসেছিলেন সম্মেলনে। যারা এখানে যোগ দিয়েছিলেন তারা অনেকেই ফিরে গেছেন ভারতের বিভিন্ন প্রান্তে। আর তার থেকে ভারতের বহু জেলায় করোনার সংক্রমন ছড়িয়েছে। বিষয়টি প্রথম সামনে আসে যখন কাশ্মীরের এক ধর্মগুরুর মৃত্যু হয় সেখান থেকে ফিরে।

নিজামুদ্দিন নিয়ে এখন আতঙ্কে রয়েছে গোটা দেশ। ইতিমধ্যে সেখান থেকে ফিরে আসা সাত জনের মৃত্যু হয়েছে। তেলেঙ্গানা, তামিলনাড়ু, পশ্চিমবঙ্গ, উত্তর প্রদেশ, ওড়িশা থেকে গিয়েছিলেন অনেক ব্যক্তি সেখানে। পশ্চিমবঙ্গ‌ থেকে যারা জামাতে গিয়েছিলেন তাদের এখনো পর্যন্ত চিহ্নিত করা হয়েছে। আপাতত তাদের কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছে। এই বিষয়টি নিয়ে রাজ ঠাকরেকে প্রশ্ন করা হলে, তিনি বলেন, এই মুহূর্তে ভারত বর্ষ একটা ভয়ঙ্কর সংকটের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে। আর এই পরিস্থিতিতে ওরা ধর্মকে বড় করে দেখছে। এরমধ্যে যদি কোন রকম ষড়যন্ত্র থাকে, তাহলে তাবলিগি জামাতে থাকা লোকদেরকে চিহ্নিত করতেই হবে। তারপর তাদের উচিত শিক্ষা দিতে হবে এবং সে ভিডিও ভাইরাল করা উচিত।

এই বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর বিবৃতি দেওয়া উচিত বলেও তিনি দাবি করেছেন। তার কথায় কি হচ্ছে এটা দেশে? এদের প্রকাশের চাবুক মারা উচিত যাতে অন্যদেরও শিক্ষা হয় এর থেকে।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here