জাতীয়

রায়দানের আগে অযোধ্যার প্রশাসনিক কর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করলেন প্রধান বিচারপতি

আমাদের ভারত,৮ নভেম্বর: অযোধ্যা মামলার রায় দেওয়ার আগে সেখানকার আইন শৃঙ্খলার পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে উত্তরপ্রদেশের মুখ্যসচিব এবং পুলিশ প্রধানের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি রঞ্জন গগৈ। রাম মন্দির-বাবরি মসজিদ মামলা রায় দানের আগে অযোধ্যার আইন শৃঙ্খলা নিয়ে মুখ্য সচিব রাজেন্দ্র কুমার তিওয়ারি এবং পুলিশ প্রধান ওম প্রকাশ সিংয়ের সঙ্গে বৈঠক করেন প্রধান বিচারপতি।

আগামী ১৭ নভেম্বর কার্যকাল শেষ হচ্ছে রঞ্জন গগৈয়ের। অনুমান করা হচ্ছে ১৫ নভেম্বরের মধ্যে যে কোনো দিন মামলার রায় বের হতে পারে।

১০০ বছরের বেশি পুরনো মামলার শুনানি শেষ হয় ৪০ দিনে। পরবর্তী প্রধান বিচারপতি এস কে বোবদে বলেন, অযোধ্যা মামলা বিশ্বের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ মামলার অন্যতম।

উত্তর প্রদেশ প্রশাসনের তরফে সমস্ত সম্প্রদায়ের মানুষকে সংযত থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। রাজনৈতিক নেতাদের বিতর্কিত মন্তব্য করতে বারণ করা হয়েছে মামলার রায় নিয়ে।

প্রধানমন্ত্রীর নরেন্দ্র মোদী বলেছেন, রায় যাই হোক না কেন, সম্প্রীতি ও সৌহার্দ্য বজায় রাখতে হবে সবাইকে।

অন্যদিকেও বৃহস্পতিবার রাতে, সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন দফতরের আধিকারিকদের সঙ্গে দীর্ঘ তিন ঘন্টা নিরাপত্তা নিয়ে বৈঠক করেন উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ। লখনৌ এবং অযোধ্যায় আপাতকালীন পরিস্থিতি মোকাবিলায়প্রস্তুত রাখা হয়েছে দু’টি হালিকাপটার। জেলা আধিকারিকদের নির্দেশিকা দিয়ে জানানো হয়েছে প্রত্যন্ত গ্রাম ও শহরে ক্যাম্প করে শান্তির বার্তা পৌঁছে দিতে হবে। নাশকতা এড়াতে ৩০ টি বম্ব স্কোয়াড উপস্থিত হয়েছে সেখানে। আগামী ১০ ডিসেম্বর পর্যন্ত কারফিউ জারি থাকবে অযোধ্যায়। ১২ নভেম্বরের মধ্যে খালি করতে বলা হয়েছে সব ধর্মশালা। শহরের বাসিন্দা ছাড়া কেউ ওই সময়‌ সেখানে থাকতে পারবে না। ড্রোনের মাধ্যমে চলছে নজর দাড়ি। মোতায়েন রয়েছে আধা সামরিক সেনাও সবমিলিয়ে এই মুহূর্তে যে কোন মূল্যে শান্তি বজায় রাখাই এখন যোগী সরকারের কাছে সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ।

Leave a Comment

twenty − 6 =

Welcome To Amaderbharat. We would like to keep you updated with the Latest News.