পুলিশ থেকে এবার প্রশাসনে রাজীব কুমারকে এনে ফেললেন মুখ্যমন্ত্রী

সৌভিক বন্দ্যোপাধ্যায়, কলকাতা, ২৭ ডিসেম্বর: কথায় বলে যা রটে তার কিছুটা বটে! বাস্তব জীবনেও হয়তো কথাটি সম্পূর্ণ ফেলনা নয়। বিরোধীরা বারবারই অভিযোগ করেছেন, মমতা সরকারের যাবতীয় কুকর্ম চাপা দিতে সাহায্য করেছিলেন রাজীব কুমার। আর তার জন্যই রাজীবকে আড়াল করতে বারবার ঝাঁপিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী।

এবার ফের সিবিআই নজরদারি থেকে বাঁচাতে আইপিএস রাজীব কুমারকে সোজা পুলিশ থেকে প্রশাসনিক পদে বদলি করল রাজ্য সরকার। সিআইডি(এডিজি) পদ থেকে প্রাক্তন পুলিশ কমিশনারকে বদলি করে তথ্যপ্রযুক্তি দফতরের প্রিন্সিপাল সেক্রেটারি হিসাবে নিযুক্ত করা হল। এই ধরনের বদলি নজিরবিহীন না হলেও বিরল বলে দাবি প্রশাসনিক কর্তাদের একাংশের।

বৃহস্পতিবার এই সংক্রান্ত নির্দেশিকা দেওয়া হয়েছে নবান্নের তরফে। ইতিমধ্যে এই সংক্রান্ত বিজ্ঞপ্তিও প্রাক্তন নগরপালের কাছে পৌঁছে গিয়েছে বলে জানা গিয়েছে। খুব শীঘ্রই নয়া পদে কাজে যোগ দেবেন রাজীব কুমার। এর আগেও রাজ কানোজিয়া থেকে সঞ্জয় মুখার্জী আইপিএস থেকে এভাবে প্রশাসনিক স্তরে বদলি হয়েছেন বলে সূত্রের খবর।

চিটফান্ড কান্ডে সিবিআই নজরে রয়েছেন রাজীব কুমার। সুপ্রিম কোর্টে এই কারণেই তার বিরুদ্ধে মামলাও চলছে। সম্প্রতি লুকআউট নোটিশ জারি হয়েছিল রাজীব কুমারের বিরুদ্ধে। পরে আদালতে আগাম জামিন পেতে সক্ষম হন রাজীব কুমার। আর এইবার পুলিশ থেকে তাকে সরাসরি প্রশাসনিক পদে বদলি করা হল। রাজনৈতিক মহলের, শুধুমাত্র এই একজনকে নিয়ে সরকারের বিশেষ তৎপরতা প্রমাণ করছে, বিরোধীদের তোলা সমস্ত অভিযোগ অমূলক নয়। তবে মুখ্যমন্ত্রী রাজীবকে যেখানেই বদলি করুন, চিটফান্ডের সঙ্গে যুক্ত থাকার ষড়যন্ত্রের সঠিক তথ্য প্রমাণ পেলে রাজীবও যে আইনের চোখে ছাড়া পাবেন না, তা স্পষ্ট করে দিয়েছেন সিবিআই গোয়েন্দারা।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here