এবারের পরিস্থিতি একেবারে আলাদা, তবে চিনকে পাল্টা দিতে প্রস্তুত সেনা, বাকিটা আর বলছি না: রাজনাথ

আমাদের ভারত, ১৫ সেপ্টেম্বর: এর আগেও বহুবার সীমান্তে ভারত-চিন মুখোমুখি হয়েছে। বহুবার আগ্রাসী মেজাজ দেখিয়েছে চিন- আর ভারত তার যোগ্য জবাব দিয়েছে। কিন্তু এবারের পরিস্থিতি একেবারে আলাদা। তবে ভারত যেকোনো পরিস্থিতি মোকাবিলার জন্য তৈরি। বাকিটা আর বলছি না। মঙ্গলবার লোকসভায় ভারত-চীন সীমান্ত পরিস্থিতি নিয়ে বিবৃতিতে দিয়ে একথাই জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং।

রাজনাথের এই বিবৃতির পর লোকসভা থেকে ওয়াকআউট করে কংগ্রেস। প্রতিরক্ষা মন্ত্রী বলেন,”এর আগে একাধিকবার সীমান্তে উত্তপ্ত পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। কিন্তু শান্তিপূর্ণভাবে তা মিটেও গেছে। কিন্তু এবছর পরিস্থিতি একেবারে আলাদা। তবে ভারত শান্তিপূর্ণভাবে সমস্যা মেটাতে বদ্ধপরিকর। লাদাখ সীমান্তে প্রায় ৩৮ হাজার বর্গকিলোমিটার চিন বেআইনি ভাবে দখল করার চেষ্টা করে যাচ্ছে।” রাজনাথ বলেন,” আমি নিশ্চিত করতে চাই আমাদের সেনার উৎসাহ-উদ্দীপনা তুঙ্গে রয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর লাদাখ সফর দেশবাসীকে বার্তা দিয়েছে সেনাবাহিনীর সঙ্গেই রয়েছে গোটা দেশ।”

ভারতীয় সেনার প্রশংসা করে রাজনাথ বলেন, “আমাদের জওয়ানরা বেজিংকে উপযুক্ত জবাব দিয়েছে। গালওয়ান সংঘর্ষে ভারতের ২০ জন জাওয়ান শহীদ হয়েছেন। কিন্তু চিনের তার চেয়ে অনেক বেশিক্ষতি হয়েছে।”

কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বলেন, সেখানে সংযম দেখানোর প্রয়োজন জওয়ানরা সেখানে সংযম ও ধৈর্য্যও দেখিয়েছেন। এই শৃঙ্খলা ও সৌর্যের জন্য সংসদ সহ দেশবাসীর সেনার পাশে দাঁড়ানো উচিত। ”

রাজনাথ সিং জানান, লাদাখের প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখায় বিরাট সংখ্যক সেনা মোতায়েন করেছে চিন। গোগ্রা, প্যাংগং লেক সহ একাধিক এলাকায় নানা ফ্রিকশন পয়েন্টে চিনের সেনা মোতায়েন করা হয়েছে। ভারতও তার পাল্টা হিসেবে বিপুল সেনা ও রসদ মজুত করেছে। এই নিয়ে সামরিক পর্যায়ে দুপক্ষের বৈঠকে আলোচনা চলছিল। সেনা সরানোর প্রক্রিয়াও শুরু হয়েছিল। তার মধ্যেই গালওয়ানে বড়োসড়ো পদক্ষেপ করেছিল চিন। ভারত তার যোগ্য জবাব দিয়েছিল। তবুও ভারত এখনোও চায় শান্তিপূর্ণভাবে সমস্যার সমাধান হোক।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here