ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তে রাখি বন্ধন উৎসবে ভারতীয় জনতা মহিলা মোর্চা ও অগ্নিমিত্রা

ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তে রাখি বন্ধন উৎসবে ভারতীয় জনতা মহিলা মোর্চা ও অগ্নিমিত্রা

সায়ন ঘোষ, আমাদের ভারত, বনগাঁ, ১৬ আগস্ট:
১৫ আগস্টের দিন ভারত-বাংলাদেশ পেট্রাপোল 
সীমান্তে ছিল কড়া নিরাপত্তায় মোড়া। যে কোনও মুহুর্তে নাশকতা মূলক ঘাটনা ঘটতে পারে! আর সেই কারণেই অতিরিক্ত জওয়ান রাখা হয়েছিল সীমান্তে।তাদের ব্যস্ততার কারণে 
শুক্রবার উত্তর ২৪ পরগণার 
পেট্রাপোল সীমান্তে পালিত হল রাখি বন্ধন 
উৎসব। এদিন সকালে বিখ্যাত ফ্যাশন 
ডিজাইনার অগ্নিমিত্রা পল, বনগাঁর 
পেট্রাপোল সীমান্তে পৌঁছন। তাঁর সঙ্গে ছিল বিজেপি
মহিলা মোর্চার একটি প্রতিনিধি দল। ভারত-বাংলাদেশের সীমান্তে দুই 
দেশের জওয়ানদের রাখি বাঁধেন 
তাঁরা।

শুক্রবার সকাল ১১টা নাগাদ ভারত-বাংলাদেশ  পেট্রাপোল সীমান্তে যান বিজেপির রাজ্য কমিটির 
সদস্যা অগ্নিমিত্রা পল।সেখানে দুই দেশের জওয়ানদের হাতে রাখি বাঁধেন তিনি।বিজিবি জওয়ানদের হাতে রাখি বেঁধে অগ্নিমিত্রা সৌভ্রাতৃত্বের বার্তা দেন। 
তাঁর সঙ্গে থাকা বিজেপি 
মহিলা মোর্চার সদস্যরাও 
জওয়ানদের হাতে রাখি বেঁধে দেন। পাশাপাশি ভারতের 
বিএসএফ জওয়ানদের হাতেও রাখি 
বাঁধেন অগ্নিমিত্রা-সহ অন্য মহিলারা। তাঁদের মিষ্টিমুখও করান। 

বিএসএফ জওয়ানরা জানিয়েছেন, জীবনের বেশির ভাগ সময়টা সীমান্তেই কেটে যায়। পরিবারের সঙ্গে কাটানোর জন্য সময় পান না তাঁরা। তার উপর স্বাধীনতা দিবসের দিন কড়া নিরাপত্তায় মুড়ে ফেলা হয় 
এলাকা। এবছর স্বাধীনতা দিবস ও রাখি একই দিনে পড়েছে। তাই তাঁদের রাখির জন্য ছুটি তো দূরের কথা, কাজ থেকে
ক্ষণিকের অব্যাহতিও মেলেনি।আজ অগ্নিমাত্রাতাঁদের রাখি পরিয়েছেন। তাঁরা খুব খুশি।

অগ্নিমিত্রা পল বলেন, 
জওয়ান ভাইদের রাখি পরিয়ে যে কল্যাণ 
কামনা করলেন তাঁরা, তা যৎসামান্যই। জওয়ান ভাইরা আরও অনেক কিছু করেন। এদিন রাখি পরার পর জওয়ানরাও 
অগ্নিমিত্রাদের কিছু উপহার দেন। উপহার পেয়ে খুশি অগ্নিমিত্রা।


 

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

eighteen + 12 =