২৪ ঘন্টায় করোনা আক্রান্ত ও মৃতের ডাবল সেঞ্চুরির বিরল রেকর্ড! ২০৮ জন করোনা পজিটিভ পশ্চিমবঙ্গে

রাজেন রায়, কলকাতা, ২৪ মে: একই সঙ্গে করোনা আক্রান্ত ও মৃতের ডাবল সেঞ্চুরি বিরল রেকর্ড প্রাপ্ত হল পশ্চিমবঙ্গের। করোনা সংক্রমণে সাম্প্রতিক সময়ে সবচেয়ে ভয়াবহ চিত্র উঠে এল রবিবারেই। আমফান বিধ্বস্ত বঙ্গে এই করোনা চিত্র রীতিমত কপালে ভাঁজ ফেলেছে প্রশাসনিক থেকে স্বাস্থ্য আধিকারিকদের।

রবিবার স্বাস্থ্য দফতরের প্রকাশিত বুলেটিনে এমনটাই জানানো হয়েছে, ২৪ ঘন্টায় রাজ্যে ২০৮ জন করোনা পজিটিভ হওয়ায় আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ৩৬৬৭ জন। আরও ৩ জনের মৃত্যু হওয়ায় রাজ্যে সরকারি মতে মোট করোনায় মৃত্যু ২০০ জনের। অন্যদিকে, করোনা শরীরে থাকাকালীন আরও ৭২ জনের মৃত্যুর হিসেব ধরলে মোট মৃত্যু ২৭২ জনের। একই সঙ্গে ২৪ ঘন্টায় আরও ৫৮ জন সুস্থের হিসেব ধরলে মোট সুস্থ ১৩৩৯ জন। সুস্থ হওয়ার হার ৩৬.৫১ শতাংশ। এই মুহূর্তে রাজ্যে করোনা আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসাধীন ২০৫৬ জন, যার মধ্যে এদিন হাসপাতালে করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ১৪৭ জনের।

বুলেটিনে আরও জানা গিয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় এ যাবৎ কালের মধ্যে সবচেয়ে বেশি করোনা পরীক্ষা হয়েছে। ২৪ রাজ্যে করোনা পরীক্ষা হয়েছে ৯২১৬ জনের। সব মিলিয়ে রাজ্যের ৩৩টি ল্যাবে মোট করোনা টেস্টের সংখ্যা ১৩৮৮২৪ জনের। এর মধ্যে ১০টি ল্যাবে চলতি সপ্তাহেই অনুমোদন পেয়েছে রাজ্য সরকার। রাজ্যের ৬৯টি করোনা হাসপাতাল, ১৬টি সরকারি এবং ৫৩টি বেসরকারি হাসপাতালে মোট ৮৭৮৫টি বেড আছে, আইসিইউ পরিষেবা রয়েছে ৯২০ জনের। ভেন্টিলেটর রয়েছে ৩৯২টি। তার ১৬.৭৮ শতাংশ রোগী ভর্তি আছেন। সরকারি কোয়ারেন্টাইনে এখন রয়েছেন ১৬২৬৫ জন। হোম কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন ১০২৩৪৯ জন।

বুলেটিনে জেলাওয়াড়ি তথ্যে জানানো হয়েছে, কলকাতায় ৫২ আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে মোট সংক্রমণ ১৬৬৭ জনের। এদিন কলকাতায় আরও ২ জনের মৃত্যু হওয়ায় কলকাতাতেই মোট মৃত্যু ১৮০ জনের। তারপরেই হাওড়ায় ৪৮ জনের সংক্রমণ বেড়ে মোট সংক্রমণ ৭৯৯ জনের। তারপরে উত্তর ২৪ পরগনায় ২১ সংক্রমণ বেড়ে মোট সংক্রমণ ৪৬৮ জনের, হুগলিতে ২০ জনের সংক্রমণ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২১৩ জনে, এখানে মৃত্যু হয়েছে একজনের। মালদায় ৩১ জনের সংক্রমণ মোট সংক্রমণ ৮২ জনের। মুশির্দাবাদে ৯ জনের সংক্রমণ বেড়ে ৪৪ জন এবং উত্তর দিনাজপুরে ১৩ জনের সংক্রমণ বেড়ে ৩৩ জনে দাঁড়িয়েছে। এছাড়া সংক্রমণ বেড়েছে দক্ষিণ ২৪ পরগনা, পূর্ব বর্ধমান, পশ্চিম বর্ধমান, নদিয়া, বীরভূম এবং ভিন রাজ্যের বাসিন্দাদের ক্ষেত্রেও। প্রথমদিকে অনেকটা পিছিয়ে থাকলেও রাজ্যের করোনা চিত্রটা ক্রমশ ভয়াবহ হয়ে উঠছে বলে চ্যালেঞ্জের মুখে আমফান বিধ্বস্ত পশ্চিমবঙ্গ প্রশাসন।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here