চাল ডাল নয়, গঙ্গারামপুরে ২০০ শিশুর পরিবারকে দুধের কৌটো দিয়ে সাহায্য করলো রিপোর্টাস এসোসিয়েশন

প্রদীপ দাস, গঙ্গারামপুর, ২৯ এপ্রিল: লকডাউনে ঘরবন্দী গরিব দুঃস্থ মানুষদের জন্য যখন সবাই ভাবছে এবং তাদের জন্য যখন চাল, ডাল, আলু তুলে দিচ্ছেন তখন তাদের থেকে এক ভিন্ন ভাবনা নিয়ে মানুষের পাশে দাড়ানোর উদ্যোগ দক্ষিণ দিনাজপুরের সাংবাদিকদের। দুঃস্থ পরিবারগুলির খুদে শিশুদের কথা ভেবে সাহায্যে এগিয়ে এল রিপোটার্স এসোসিয়েশন। বুধবার গঙ্গারামপুরের ১৮টি ওয়ার্ডে ঘুরে ঘুরে প্রায় ২০০টি দুঃস্থ পরিবারের হাতে তুলে দেওয়া হয় দুধের কৌটো। খবরের পাশাপাশি সাংবাদিকদের এমন সামাজিক উদ্যোগকে সাধুবাদ জানিয়েছেন জেলার বাসিন্দারা।

লকডাউনের ফলে কাজ হারিয়ে পরিবারের খাবার জোগাড় করতে হিমশিম খাচ্ছেন অনেকেই। এবারে সেই সব মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে তাঁদের ছোট ছোট শিশুদের কথা ভেবে দুধের কৌটো তুলে দিল সাবডিভিশনাল রিপোটার্স অ্যাসোশিয়েশন। গঙ্গারামপুর থানার সামনে এই কর্মসূচি নেওয়া হলেও শহরের বিভিন্ন প্রান্তে ঘুরে ঘুরে কিছু পরিবারকে দুধের কৌটা দেওয়া হয়েছে। সামাজিক দূরত্ব মেনেই সাংবাদিকদের আয়োজিত ওই কর্মসূচিতে উপস্থিত ছিলেন গঙ্গারামপুর থানার আইসি পূর্ণেন্দু কুমার কুণ্ডু, রাষ্ট্রপতি পুরুস্কার প্রাপ্ত শিক্ষক তথা সাংবাদিক পবিত্র মহন্ত সহ সংগঠনের সভাপতি চয়ন হোড়, সম্পাদক শীতল চক্রবর্ত্তী প্রমুখ। এদিন এলাকার দিনআনা দিন খাওয়া দুঃস্থ মানুষের পাশাপাশি ভ্যান চালক, রিক্সা চালক প্রভৃতি পেশায় যুক্ত মানুষের পরিবারে সুবিধা পৌঁছে দিয়েছেন সাংবাদিকরা।

সাংবাদিক সংগঠনের সভাপতি চয়ন হোড় জানিয়েছেন, বিপদের দিনে সকলেই গরিব দুঃস্থ মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন। তবে তাঁরা কিছুটা আলাদা পথে শিশুদের কথা চিন্তা করে দুধের কৌটো বিলির সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। এদিন এলাকার প্রায় ২০০ পরিবারকে তাঁদের শিশুদের জন্য দুধের কৌটো দেওয়া হয়।

গঙ্গারামপুর থানার আইসি পূর্ণেন্দু কুমার কুণ্ডু সাংবাদিকদের এমন উদ্যোগের ভূয়সী প্রশংসা করেছেন । তিনি বলেন, মানুষের সেবায় সাংবাদিকদের এমন কাজ আরও অনেককেই সমাজসেবায় অনুপ্রাণিত করবে।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here