৭ বছরেও রাস্তা সম্পূর্ণ না হওয়ায় ক্ষুব্ধ ধনেশ্বরপুরের বাসিন্দারা

জে মাহাতো, আমাদের ভারত, মেদিনীপুর, ৪ আগস্ট:
সাত বছরেও রাস্তা সংস্কার সম্পূর্ণ না হওয়ায় চরম সমস্যায় পড়েছেন মোহনপুর ব্লকের তুরকা ধনেশ্বরপুর এলাকার বাসিন্দারা। ধনেশ্বরপুর থেকে মোহনপুর পর্যন্ত চব্বিশ কিলোমিটার রাস্তাটি সংস্কারের জন্য চার কোটি টাকা বরাদ্দ হয়। সেই টাকা জেলা পরিষদে পড়ে রয়েছে। দীর্ঘদিন টাকা খরচ না হওয়ায় ৭ বছরেও সম্পূর্ণ হয়নি রাস্তা সংস্কারের কাজ।

নারায়ণগড়, দাঁতন-২ ও মােহনপুর ব্লকের মধ্যে যোগাযোগের অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ এই রাস্তা তৈরির কাজ শুরু হয়েছে সেই ২০১৩ সালের ডিসেম্বরে। মােহনপুরের দিক থেকে নারায়ণচক পর্যন্ত রাস্তা তৈরি হলেও ধনেশ্বরপুর থেকে তুরকা পর্যন্ত আট কিমি অসম্পূর্ণ অংশটি বর্তমানে যাতায়াতের একেবারে অযােগ্য হয়ে পড়ে রয়েছে।  দাঁতন ২ ব্লকের খন্ডরুই থেকে তুরকা পর্যন্ত অংশটির একেবারে বেহাল দশা। সামান্য বৃষ্টিতে গােটা রাস্তাটি ডোবায় পরিণত হয়। ফলে দিন দিন ক্ষোভ বাড়ছে বাসিন্দাদের মধ্যে। রাস্তাটি সম্পূর্ণ তৈরি না হওয়ায় দাঁতন-২ নম্বর ব্লকের সাবড়া, তুরকা, জেনকাপুর ও মােহনপুর ব্লকের শিয়ালসাই গ্রাম পঞ্চায়েত গুলির বিস্তীর্ণ এলাকার মানুষের দুর্ভোগ চরমে পৌঁছেছে।

স্থানীয় বাসিন্দাদের  অভিযােগ, বেহাল রাস্তায় আকছার ঘটছে দুর্ঘটনা। এলাকায় থাকা দুটি হাসপাতালে অ্যাম্বুলেন্সে রোগী নিয়ে যেতে সমস্যায় পড়তে হচ্ছে বাসিন্দাদের। বারবার প্রশাসন ও জন প্রতিনিধিদের দ্বারস্থ হয়েও কোনও লাভ হয়নি। পথ অবরোধ বিক্ষোভ আন্দোলন সবই হয়েছে। কিন্তু রাস্তা সংস্কার রয়েছে সেই তিমিরেই।

পশ্চিম মেদিনীপুর জেলা পরিষদের পূর্ত কর্মাধ্যক্ষ নির্মল ঘােষ জানিয়েছেন, জেলা পরিষদের অধীন এই রাস্তার বাকি কাজের জন্য জেলা পরিষদে চার কোটি টাকা রয়েছে। তার সঙ্গে আর ১ কোটি টাকা যােগ করে মােট পাঁচ কোটি টাকা খরচ করে রাস্তাটির বাকি কাজ সম্পূর্ণ করা হবে। যদিও দীর্ঘ ৭ বছরে বহুবার আশ্বাস পেয়েও কাজ না হওয়ায় বাস্তবায়নের বিষয়ে সন্দিহান এলাকাবাসী।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here