ময়নাগুড়ি রেল দুর্ঘটনায় সেনা ও রেলের সঙ্গে তালে তাল মিলিয়ে উদ্ধারকাজে হাত লাগাল সঙ্ঘ ও সেবা ভারতী

আমাদের ভারত, ১৪ জানুয়ারি: বৃহস্পতিবার ময়নাগুড়ির দোমহানিতে এক ভয়াবহ রেল দুর্ঘটনার কবলে পড়ে বিকানের-গৌহাটি এক্সপ্রেস। ট্রেনের একাধিক কামরা লাইনচ্যুত হয় , মৃত্যু হয়েছে কমপক্ষে ৯ জনের, আহত হন শতাধিক মানুষ। সেনা ও রেলকর্মীর সাথে উদ্ধার কাজে নামেন রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সহ একাধিক হিন্দুত্ববাদী সংগঠনের কর্মীরা।

ভয়াবহ ট্রেন দুর্ঘটনার খবর আসতেই রাজ্য পুলিশ, বিএসএফ, এনডিআরএফ, রেল পুলিশের সাথে উদ্ধার কাজে ঝাঁপিয়ে পরেন ময়নাগুড়ি খন্ডের স্থানীয় স্বয়ংসেবকরা। ট্রেন থেকে আহত যাত্রীদের বের করে নিয়ে আসা,তাদের অ্যাম্বুলেন্সে করে হাসপাতালে পাঠানো, চা ও গরম জলের ব্যবস্থা – সব কাজেই হাত লাগান স্থানীয় স্বয়ংসেবকরা। এগিয়ে আসেন অখিল ভারতীয় বিদ্যার্থী পরিষদ, বিশ্ব হিন্দু পরিষদ, সেবা ভারতী ও ভারতীয় জনতা পার্টির স্থানীয় কার্যকর্তারা।

দুর্ঘটনার সন্ধ্যা থেকে শুরু করে সারা রাত, এমনকি শুক্রবার সারা দিন জল, চা, গরম জল, শুকনো খাবারের ব্যবস্থা ও সরবরাহ করা হয়। একই সঙ্গে দুর্ঘটনায় আহত যাত্রীদের সর্বক্ষণ খেয়াল রাখার কারণে লুঠ বা চুরির মতো কোনো অপ্রীতিকর ঘটনারও খবর পাওয়া যায় নি।

শুধু সেবা বা সুরক্ষাই নয়, এর পাশাপাশি স্বচ্ছতা বিষয়েও সজাগ ছিলেন স্বয়ংসেবকরি। সঙ্ঘের অখিল ভারতীয় সহ প্রচারক প্রমুখ শ্রী অদ্বৈতচরণ দত্ত মহাশয় নিজে স্বচ্ছতাকাজে অংশগ্রহণ করেন।

এছাড়াও জলপাইগুড়ি নগর ও শিলিগুড়ি নগরের স্বয়ংসেবক ও কার্যকর্তারা এই উদ্ধার কাজে হাত লাগান। হেল্পলাইন নম্বরের ব্যবস্থা, রক্তদানের ব্যবস্থা, এনজেপি স্টেশন ও বাগডোগরা বিমানবন্দরে সহায়তাকেন্দ্র, জলপাইগুড়ি সুপার স্পেশালিটি হাসপাতাল ও শিলিগুড়ির উত্তরবঙ্গ মেডিক্যাল কলেজে ভর্তির ব্যবস্থা সহ নানা বিষয়ে পদক্ষেপ করেন তারা। এনএমও এর চিকিৎসক বন্ধুরাও সেবাকাজে এগিয়ে আসেন।

জলপাইগুড়ি হাসপাতালে রক্তদানের ব্যবস্থা করা হয়। আহত ব্যক্তিদের সাথে কথা বলে তাদের বাড়িতে যোগাযোগ করা ও বাড়ির পরিজনদের খবর দেওয়া হয়। সেখানেও শুকনো খাবারের ব্যবস্থা করা হয়।

উত্তরবঙ্গ মেডিক্যাল কলেজে সারারাত জেগে সহায়তা করেন শিলিগুড়ির কার্যকর্তারা। জলপাইগুড়ি হাসপাতাল থেকে রেফার হওয়া রোগীদের ভর্তির বিষয়ে এখানে সহায়তা করা হয়।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here