স্যানিটাইজার–ওয়ালা, মাস্ক–ওয়ালার পর এবার ঘুড়ি–ওয়ালা

স্বরূপ দত্ত, উত্তর দিনাজপুর, ২৪ মে: করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধে সচেতনতা গড়ে তুলতে স্যানিটাইজার–ওয়ালা থেকে মাস্ক–ওয়ালা হয়ে পথে পথে ঘুরে বেড়িয়েছেন। এবার কচিকাঁচাদের আনন্দ দেওয়ার পাশাপাশি ঘুড়ি–ওয়ালা হয়ে অনন্য নজির রায়গঞ্জের বাসিন্দা প্রাথমিক স্কুলের শিক্ষক বিপ্লব মন্ডলের। গ্রামগঞ্জের শিশুদের মাঝে বিলি করা এই ঘুড়ি যেমন শিশুদের একঘেয়েমি বন্দী জীবন থেকে কিছুটা মুক্তির স্বাদ দেবে তেমনি ঘুড়ির গায়ে লেখা করোনা ভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে প্রচার সাধারন মানুষকে সচেতন করে তুলবে। শিক্ষক বিপ্লব মন্ডলের এই অভিনব সচেতনতামূলক উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছেন রায়গঞ্জের বাসিন্দারা।

করোনা ভাইরাস থাবা বসানোর পর থেকেই একক প্রচেষ্টায় নিরলসভাবে করোনা সংক্রমন প্রতিরোধে সচেতনতার প্রচার করে চলেছেন রায়গঞ্জ বোগ্রামের বাসিন্দা প্রাথমিক স্কুল শিক্ষক বিপ্লব মন্ডল। না তাঁর নিজস্ব কোনও স্বার্থ নেই৷ স্বার্থ সমাজকে করোনা মুক্ত করার। তাই প্রথমেই গ্রাম থেকে শহর সর্বত্র মানুষকে স্যানিটাইজিং করার উদ্যোগ নিয়েছিলেন তিনি। নিজেই স্যানিটাইজার তৈরি করে তা সাধারন মানুষের মধ্যে বিলি করার পাশাপাশি হাট বাজার থেকে রাস্তায় চলাচলকারী সমস্ত যানবাহনগুলিও স্যানিটাইজিং করেন তিনি। এরপর টিসু পেপার দিয়ে তৎক্ষনাৎ মাস্ক তৈরি করে রাস্তায় চলাচলকারী মাস্কবিহীন মানুষদের মাস্ক পড়িয়ে সাধারন মানুষকে সচেতন করার কাজ করেন।

এবার গ্রামগঞ্জের ছোট ছোট ছেলেদের হাতে তুলে দিলেন করোনা সচেতনতা ঘুড়ি। “লক ডাউন মেনে চলুন”, সাবান দিয়ে বারে বারে হাত ধোওয়ার আবেদন সহ একাধিক করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধে নানান বার্তা সহ আকাশে ঘুড়ি উড়িয়ে রায়গঞ্জের মানুষকে সচেতন করার প্রয়াস নিয়েছেন শিক্ষক বিপ্লব মন্ডল। একদিকে শিশুদের মনোরঞ্জনের পাশাপাশি মানুষের মধ্যে সচেতনতা গড়তেই এই উদ্যোগ বলে জানালেন সমাজসেবী শিক্ষক বিপ্লব মন্ডল।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here