ভারতবর্ষের সংবিধানের সংজ্ঞা বললেন শুভেন্দু অধিকারী

সাথী প্রামানিক, পুরুলিয়া, ১৪ ডিসেম্বর: দলের প্রথম শহিদের স্মরণ সভায় এসে বিজেপি তথা কেন্দ্রীয় সরকারকে আক্রমণ করলেন তৃণমূল নেতা ও মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী। শনিবার, বাঘমুন্ডির অযোধ্যা পাহাড়ের কোলে বাড়েরিয়া মোড়ে আয়োজিত ওই সভায় প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন দলের জেলা পর্যবেক্ষক শুভেন্দু অধিকারী। তিনি বিজেপির দখল নেওয়া বাঘমুন্ডির ক্ষেত্রকে বেছে নেন এদিন।

শুভেন্দু সিএবি এবং এনআরসি ইস্যুকে উপস্থিত মানুষের কাছে বিজেপির সমালোচনা করে বলেন, ‘সংবিধান সংশোধন করে ভারতবর্ষের যে ধর্ম নিরপেক্ষতার ঐতিহ্য আছে তাকে ভাঙার চেষ্টা করা হচ্ছে। কারণ তারা জানে মানুষের মঙ্গলের জন্য কাজ করতে পারেনি।’ এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘ভারতবর্ষের সংবিধান বলেছে রোটি কাপড়া আউর মকান, বিজলি পানি আউর সামান। এটাই হচ্ছে ভারত বর্ষের সংবিধানের সংজ্ঞা।’ দেশের দারিদ্র দূরীরকরণ, বেকারত্ব দূরীকরণ, নিত্য প্রয়োজনীয় দামকে নিয়ন্ত্রণ করা, কৃষকদের উচিত মূল্য দেওয়া এটাই হওয়া উচিত এজেণ্ডা। কিন্তু এটাকে ধ্যান না দিয়ে বিজেপি সরকার অন্য খেলায় মেতেছে। কবি গুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরেরের নানা ভাষা নানা মত নানা পরিধান বিবিধের মাঝে দেখ মিলন মহান – এটাকে খর্ব করছে বিজেপি।’


 
১৯৯৮ সালের ৯ ডিসেম্বর বাড়েরিয়া গ্রামের যুবক প্রধান সিং মুড়াকে হত্যা করে ততকালীন শাসক দল সিপিএমের দুষ্কৃতীরা। দলের ওই কর্মীকে শ্রদ্ধা জানাতে এদিন সভা করে তৃণমূল। এদিনের সভায় রাজ্যের মন্ত্রী শান্তিরাম মাহাতো, রাষ্ট্র মন্ত্রী সন্ধ্যা রানি টুডু এবং তৃণমূলের অন্যান্য বিধায়ক সভাধিপতি ও জেলা নেতা নেত্রীরা উপস্থিত ছিলেন। সভা মঞ্চে বেশ কিছু বিজেপি সমর্থিত পরিবার তৃণমূলে যোগ দেয়।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here