উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে কম নম্বর দিয়েছেন পরীক্ষক, অভিযোগে সরব সিধো কানহো বিরসা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস বিভাগের চার শিক্ষার্থী

সাথী দাস, আমাদের ভারত, পুরুলিয়া, ৮ জুলাই: সঠিক উত্তর দেওয়ার পরেও নম্বর কম পেলেন শিক্ষার্থীরা।উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে পরীক্ষক নম্বর কম দিয়েছেন। এই অভিযোগ করে কর্তৃপক্ষের কাছে বিষয়টির দৃষ্টি আকর্ষণ করলেন পুরুলিয়ার সিধো কানহো বিরসা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস বিভাগের চতুর্থ সেমিস্টারের চার শিক্ষার্থী। বিশ্বজিৎ মাহাতো, প্রিয়রঞ্জন মাহাতো, অরূপ চন্দ্র মাহাতো, নীলকমল কুমার নামে ওই শিক্ষার্থীরা বুধবার, বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষা নিয়ামক সুবল চন্দ্র দে’র কাছে লিখিতভাবে একটি আবেদনপত্র জমা দেন।
ওই পত্রে সরাসরি তাঁদের কো-অর্ডিনেটর গীতশ্রী সিংহের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেন।

তাঁদের অভিযোগ, প্রথম থেকে তৃতীয় সেমিস্টার ওই কো-অর্ডিনেটরের পত্রে প্রতিটি প্রশ্নের সঠিক উত্তর দেওয়া সত্বেও  ৪০ শতাংশের বেশি নম্বর দেননি। অথচ, অন্যান্য সব পত্রে সঠিক মূল্যায়ন হয়েছে। ওই শিক্ষার্থীদের দাবি তাঁরা যথেষ্ট মেধাবী। তা অতীতের বিভিন্ন পরীক্ষা ও বর্তমানে বিভাগীয় ভাবে প্রমাণ রয়েছে। প্রথম সেমিস্টার থেকে রিভিউ করে প্রচুর নম্বর বেড়েছে। প্রতিবার টাকা দিয়ে রিভিউ করার মতো সামর্থ্য তাঁদের নেই বলে জানান হতাশ শিক্ষার্থীরা। এই ভাবে প্রতিটি সেমেস্টারে হেনস্থা করা হলে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের সংশ্লিষ্ট বিভাগের ওই কো-অর্ডিনেটরের যোগ্যতার প্রশ্ন উঠবে বলে জানান ওই চার শিক্ষার্থী।

এই বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষা নিয়ামক জানান, ওই শিক্ষার্থীরা যে দাবি করছেন তা অবশ্যই খতিয়ে দেখবে কর্তৃপক্ষ। তবে, বিশ্ববিদ্যালয়ের যা নিয়ম তা মানতে হবে সবাইকে। রিভিউয়ের আবেদন করলে তাপ পুনর্মূল্যায়ণ করা হবে।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here