ইগো সরিয়ে যুব সমাজকে উদ্বুদ্ধ করার পরামর্শ সোহমের

সাথী দাস, আমাদের ভারত, পুরুলিয়া, ২৯ জুন: ব্যক্তিস্বার্থ ও ইগো সরিয়ে যুব সমাজকে উদ্বুদ্ধ করে সাংগঠনিক শক্তি বৃদ্ধির পরামর্শ দিলেন তৃণমূল যুব কংগ্রেসের সহ সভাপতি তথা টলিউডের জনপ্রিয় অভিনেতা সোহম চক্রবর্তী। দলীয় ‘বাংলার যুব শক্তি’ কর্মসূচির রূপায়ণের রূপরেখা তৈরি করতে এসে পুরুলিয়ায় তৃণমূল যুব কংগ্রেসের ফিল্ড সদস্যদের একথা বললেন তিনি। সোমবার, পুরুলিয়া শহরের একটি হোটেলে আয়োজিত সাংগঠনিক সভায় পুরুলিয়া সহ রাজ্যের ৬ জেলার এই প্রকল্পের দায়িত্বে থাকা সোহম ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন নির্মাল্য চক্রবর্তী। কার্যত বিজেপির যুব সমাজের সমর্থকদের মধ্যে ভাঙ্গন ধরিয়ে তৃণমূলে উদ্বুদ্ধ করাই মূল লক্ষ্য। এদিন ওই সভায় বক্তাদের মধ্যে সেই বিষয়টি বারবার উঠে আসে।

বাংলার যুব শক্তিকে কাজে লাগিয়ে তৈরি করতে চলেছেন এক লক্ষ ‘যুব যোদ্ধা’। এই যুব যোদ্ধাদেরই ময়দান নামিয়ে তিনি ২০২১-এ জয় হাসিল করার পরিকল্পনা নিয়েছেন। তৃণমূলের প্রচার পরিকল্পনায় এসেছে এই করোনার আবহে দলকে শক্তিশালি করতে। বিজেপিকে প্রতিহত করতে তৃণমূলের নতুন এক প্রয়াস।
বাংলার সঙ্গে পুরুলিয়া জেলাতেও যুব শক্তির জাগরণ ঘটাতে বাংলার যুবশক্তিই পারে তৃণমূলকে ফের সাফল্যের চূড়ায় পৌঁছে দিতে। তাই যুব যোদ্ধা তৈরি করে নামাতে চাইছে ২০২১-এর ময়দানে। এই উদ্যোগকে কার্যকর করতে ২৮০০ তৃণমূল যুব সদস্যের সমন্বয়ে তিনটি কমিটি তৈরি করা হয়েছে রাজ্যে।

রাজ্য, জেলা ও ব্লক স্তরের তিনটি কমিটিতে যুব সদস্যদের রেখে পুরো নির্বাচন পরিচালিত হবে। সেইলক্ষ্যে রাজ্যজুড়ে যুবদের নিবন্ধকরণ শুরু হয়েছে। বাংলায় বিজেপি যে ভুল তথ্য ছড়িয়ে দিচ্ছে, কুৎসা-অপপ্রচারের রাজনীতি করছে, এই কমিটি তা রুখতে ময়দানে নামবে। এই উদ্যোগ বিশেষ তাৎপর্যপূর্ণ হতে চলেছে বিজেপির দখল করে থাকা পুরুলিয়াতে। এদিনের সভায় বক্তব্য রাখেন তৃণমূল জেলা সভাপতি তথা রাজ্যের মন্ত্রী শান্তিরাম মাহাতো সহ দলের জেলা পদাধিকারীরা।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here