মহানগরীতে মন ছুঁয়ে গেল ‘ব্যঞ্জনা’-র বসন্তসন্ধ্যা

মহানগরীতে মন ছুঁয়ে গেল ‘ব্যঞ্জনা’-র বসন্তসন্ধ্যা

আমাদের ভারত, কলকাতা, ১২ এপ্রিল: নির্বাচনের পারদ চড়ছে ক্রমশঃ, অন্যদিকে চড়া রোদে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে গরম। তাতে কি আসে যায়। সৃজনশীলতায় ভরা এই বাংলায় ঋতুরাজকে নিয়ে উন্মাদনার বিরাম নেই যে। তাই সম্প্রতি মহানগরী কলকাতায় পাটুলির মিউজিক ক্যাফেতে ‘ব্যঞ্জনা’ আয়োজিত বসন্ত সন্ধ্যা জমে উঠল সুরে-ছন্দে-কলতানে আর আন্তরিকতায়। আবিরের রঙে রাঙানো থেকে ফুলের রাখি পরিয়ে বন্ধুত্বের সুতোয় বেঁধে মিষ্টি মুখ সবকিছুই ছিল আন্তরিকতায় ভরা। ‘হৃদি জাগে মিলি ফাগে’ শিরোনামে এই বসন্ত সন্ধ্যা আগাগোড়া হয়ে উঠেছিল শ্রোতা-দর্শক-শিল্পীদের আন্তরিকতার ছোঁয়ায় প্রাণবন্ত।

ব্যঞ্জনার কর্ণধার শর্মিষ্ঠা দত্ত রায় জানান ‘ব্যঞ্জনা’ একটি সামাজিক সাংস্কৃতিক বন্ধন। রং-বেরঙের ফাগধারায় ভাবনার সাথে সাযুজ্য রেখেই ‘হৃদি জাগে মিলি ফাগে’ শীর্ষক অনুষ্ঠানের আয়োজন। এক দশকের বেশি সময় ধরে ‘ব্যঞ্জনা’ মহানগরীর বুকে সংস্কৃতির ভিন্ন ভিন্ন ধারা নিয়ে কাজ করে চলেছে। এই অনুষ্ঠানটিও ভিন্ন আঙ্গিকে সাজানো একটি অনুষ্ঠান। নাচ, গান, আবৃত্তি, কবিতা কোলাজ, কথা নাটক, আড্ডা গল্প সব মিলে এক অন্য মাত্রা পায় অনুষ্ঠানটি। ইন্দ্রাণী রায়ের কণ্ঠে ঠুংরি, দাদরা ও ঝুমুর গানের ছন্দে মোহিত হন শ্রোতা-দর্শকরা। জনপ্রিয় অভিনেতা বিশ্বনাথ বসু এই অনুষ্ঠানে হাজির থেকে অভিভূত হয়ে আগামী দিনে ব্যঞ্জনার অনুষ্ঠানে হাজির থাকার অঙ্গীকার করেন। বিশ্বনাথ বসু আরও জানান যে তাঁর পৈতৃক ভিটেতে তিনি এই ধরণের প্রাণোচ্ছল সুস্থ রুচির অনুষ্ঠানের আয়োজন করবেন। সেখানে থাকার জন্য আগাম আমন্ত্রণও জানান ব্যঞ্জনাকে। জমজমাট কয়েকঘন্টার এই অনুষ্ঠানটিকে কথার মালায় গেঁথে আকর্ষণীয় করে তোলেন প্রথিতযশা বাচিকশিল্পী তথা আয়োজক সংস্থার কর্ণধার শর্মিষ্ঠা দত্ত রায়।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

19 + 10 =