সুকান্ত মজুমদারকে “আমার সভাপতি” বলে উল্লেখ করে সমস্ত রাজনৈতিক দ্বৈরথে জল ঢাললেন শুভেন্দু অধিকারী

আমাদের ভারত, ২২ নভেম্বর: বিজেপি রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদার এবং বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীর মধ্যে দ্বৈরথ চলছে, হ্যাঁ রাজ্য রাজনীতিতে এই বক্তব্য বারবার উঠে আসতে দেখা গেছে। মঙ্গলবার সুকান্ত মজুমদার যখন বিধানসভায় গিয়েছিলেন সেই সময় শুভেন্দু অধিকারী গড় হাজির ছিলেন। আর তাতেই গুঞ্জন শুরু হয়েছিল। বুধবার একেবারে কড়া হাতে সেই গুঞ্জনের মোকাবিলা করলেন শুভেন্দু। বিরোধী দলনেতা বলেন, সুকান্ত বাবু আমার সভাপতি।

বুধবার আসন নিয়ে আপত্তি তুলে রাজভবনে রাজ্যপালের শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানে অনুপস্থিত ছিলেন শুভেন্দু অধিকারী ও সুকান্ত মজুমদার। এই ইস্যুতে সুকান্ত বাবুর হয়ে ব্যাট ধরেন শুভেন্দু অধিকারী। তিনি বলেন, মালা রায় সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায় ডেরেক ও ব্রায়েন যদি সাংসদ হন তাহলে ডক্টর সুকান্ত মজুমদারও সংসদ। তারা প্রথম সারিতে বসবে আর সুকান্ত মজুমদার বানের জলে ভেসে এসেছেন নাকি যে তিনি পিছনে সারিতে বসবেন? আপনাদের সবার থেকে সুকান্ত মজুমদারের পড়াশোনা অনেক বেশি।

একই সঙ্গে রাজ্য সরকার বদল নিয়ে সুকান্ত মজুমদারের মন্তব্য প্রসঙ্গে শুভেন্দু বাবু বলেন, আমরা বিধায়ক ভাঙ্গিয়ে সরকার গড়বো না। আপনারা যে অর্থে বলছেন সরকার পরিবর্তন, আমরা ভোটে জিতে সরকার গড়ব। আর আমি বলছি বড় চোর ধরা পড়বে ডিসেম্বরে। আমি আমার মত করে বললাম। আমার সভাপতি তার মতো করে রাজনৈতিকভাবে বলেছেন।

মঙ্গলবার দুপুরে দলীয় বিধায়কদের সঙ্গে বৈঠক করতে বিধানসভায় যান বিজেপি রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদার। কিন্তু তখন বিধানসভায় হাজির ছিলেন না শুভেন্দু বাবু। আর এর পরই শুভেন্দু সুকান্ত দ্বৈরথ নিয়ে তর্জা শুরু হয়ে যায়। কিন্তু সেই জল্পনায় নিজে হাতে জল ঢাললেন শুভেন্দু অধিকারী।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here