নিজের দুর্গে পদ হারালেন সুব্রত মুখোপাধ্যায়, পঞ্চায়েতমন্ত্রীর বদলে চেয়ারম্যানের দায়িত্বে মণীশ

রাজেন রায়, কলকাতা, ২৪ জুলাই: ২০১৯ লোকসভা নির্বাচনে তৃণমূল কান ঘেঁষে জয় ছিনিয়ে আনতে পারলেও বিজেপির বাড়বাড়ন্তে রাজ্যে ক্রমবর্ধমান রাজনৈতিক সম্মানের অনেকটাই ক্ষতি হয়েছে বলে মত রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের। তাই ২০২১ বিধানসভা নির্বাচনের আগে নিজের ঘুঁটি সাজাতে বিন্দুমাত্র ভুল করতে নারাজ তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। দীর্ঘদিনের রাজনৈতিক অভিজ্ঞতাকে সামনে রেখে অভিজ্ঞতা এবং তারুণ্যের মিশেল ঘটিয়ে সংগঠনের ব্যাপক রদবদল ঘটিয়েছেন তিনি। তারচেয়ে একদিকে যেমন বাদ পড়েছেন বহু পোড়খাওয়া দুঁদে রাজনৈতিক নেতা, তেমনি দলে এসেছেন বহু নবীন নেতৃত্ব। আর দক্ষিণ কলকাতায় নিজের দুর্গে পঞ্চায়েত মন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায়কে সরিয়ে দিয়ে চেয়ারম্যান পদে মণীশ গুপ্তকে নিয়ে এলেন তৃণমূল নেত্রী। যা নিঃসন্দেহে বড়সড় পরিবর্তন বলে মত তৃণমূলের একাংশের।

বস্তুত, সুব্রত মুখোপাধ্যায় এর সঙ্গে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের রাজনৈতিক জীবনের ওঠাপড়া দীর্ঘদিনের। কংগ্রেসের আমল থেকে তো বটেই এমনকি মমতা রাজনৈতিক জীবনের মোড় ঘুরিয়ে দেওয়া সিঙ্গুর আন্দোলনের সক্রিয় সাক্ষী ছিলেন সুব্রত বাবু। এহেন সুব্রত বাবুকে মন্ত্রিত্বের দায়িত্বে রাখলেও দক্ষিণ কলকাতার পর্যবেক্ষকের দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দিলেন তৃণমূল নেত্রী।

বৃহস্পতিবারের পর শুক্রবার শুক্রবার ফের একবার দলের তরফে বিবৃতি জারি করে জানানো হল দক্ষিণ কলকাতার চেয়ারম্যানের পদ থেকে সুব্রত মুখোপাধ্যায়কে সরিয়ে নতুন চেয়ারম্যান পদে অভিষেক ঘটানো হল মণীশ গুপ্তর।

যদিও দলীয় নেতারা বলছেন, ওই পদের তেমন কোনও গুরুত্ব নেই।আসল ক্ষমতা থাকবে জেলা সভাপতির হাতেই। তবে ভোটের আগে তৃণমূলনেত্রী কারও কোনও অসন্তোষ রাখতে চান না। তাই আলঙ্কারিক পদ দিয়ে রাখা হল নদিয়ায় উজ্বল বিশ্বাস, কোচবিহারে বিনয়কৃষ্ণ বর্মন, পুরুলিয়ায় শান্তিরাম মাহাতোদের। বীরভূমের আশিস বন্দ্যোপাধ্যায়, উত্তর ২৪ পরগনায় নির্মল ঘোষদের মতো প্রভাবশালী নেতাদেরও দেওয়া হল চেয়ারম্যানের পদ। আবার আরেক মহলের দাবি, চেয়ারম্যান পদটি আসলে জেলা সভাপতির উপরে জেলা পর্যবেক্ষকের পদ। জেলা সভাপতি সংগঠন সামলালেও সংগঠনের ওঠাপড়া বুঝতে এই পদটির গুরুত্ব কম নয়।

উত্তর কলকাতার চেয়ারম্যান করা হয়েছে সাংসদ সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায় কে। উত্তর ২৪ পরগনার চেয়ারম্যান করা হয়েছে পানিহাটির বিধায়ক নির্মল ঘোষ কে। এবং দার্জিলিং জেলার চেয়ারম্যান হয়েছেন পর্যটন মন্ত্রী গৌতম দেব।

এছাড়াও একটি রাজ্যস্তরের স্টিয়ারিং কমিটি গঠন করেছেন তৃণমূল নেত্রী। যে কমিটিতে সুব্রত বক্সী, পার্থ চট্টোপাধ্যায়, ফিরহাদ হাকিম, শুভেন্দু অধিকারী, অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়, কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায় এবং শান্তা ছেত্রীকে রাখা হয়েছে। এই কমিটিতে অরূপ বিশ্বাসের নাম নেই।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here