“গ্রেট ক্যালকাটা কিলিংসে”র দিনেই “খেলা হবে দিবস” পালনের ডাক দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী : স্বপন দাশগুপ্ত

আমাদের ভারত, ২১ জুলাই:আগামী ১৬ আগস্ট মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় “খেলা হবে দিবস” পালন করা হবে বলে ঘোষণা করেন। আর এই ঘোষণার পরেই বিজেপি নেতা স্বপন দাশগুপ্ত মনে করিয়ে দিলেন, এই দিনটিতেই ১৯৪৬ সালের মুসলিম লিগ ডাইরেক্ট অ্যাকশন এবং গ্রেট ক্যালকাটা কিলিং শুরু করেছিল। তিনি মনে করিয়ে দিলেন এই একই দিনের কালো ইতিহাসের কথা। তাঁর অভিযোগ “খেলা হবে” স্লোগানটি আসলে রাজ্যের বিরোধীদের বিরুদ্ধে হিংসার প্রতীক হয়ে উঠেছে।

বিজেপি নেতা তথা রাজ্যসভার সাংসদ স্বপন দাশগুপ্তের মতে এই দুটি দিনের মধ্যে মিল রয়েছে। খেলা হবে দিবসটি ব্রিটিশ জামানায় কলকাতার দাঙ্গার স্মৃতি উসকে দেয় বলেও দাবি করেছেন তিনি।

যদিও তৃণমূলের একাংশের দাবি জাতীয় ফুটবল প্রেমী দিবস হিসেবে এই দিনটির তাৎপর্য রয়েছে। ১৯৮০ সালের এই দিনে ইডেনে মোহনবাগান ইস্টবেঙ্গলের ডার্বি ঘিরে উত্তেজনার বলি হয়েছিলেন ১৬ জন ফুটবলপ্রেমী। আর সেই কারণেই ১৬ আগস্টের বৃহত্তর তাৎপর্য রয়েছে বলে।

বুধবার ২১ জুলাই বক্তৃতায় মমতা ঘোষণা করেন, আগামী ১৬আগস্ট “খেলা হবে দিবস” পালিত হবে । আর এরপরই বিজেপি নেতা স্বপন দাশগুপ্ত টুইট করেন, এটি বেশ আকর্ষণীয় বিষয়, ১৬ আগস্টকে “খেলা হবে দিবস” হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছে। ১৯৪৬ সালের এই দিনটিতেই মুসলিম লিগ ডাইরেক্ট অ্যাকশন এবং গ্রেট ক্যালকাটা কিলিং শুরু করেছিল। আর আজকে পশ্চিমবঙ্গে “খেলা হবে” স্লোগানটিও প্রতিপক্ষের ওপর হিংসার প্রতীকে পরিণত হয়েছে।

১৯৪৭ এর ১৬ আগস্ট কলকাতায় সাম্প্রদায়িক দাঙ্গার সূচনা হয়েছিল, যা দ্য গ্রেট ক্যালকাটা কিলিং নামে ইতিহাসে পরিচিত। ওই দিনই পৃথক পাকিস্তান রাষ্ট্রের দাবিতে মুসলিম লিগ প্রত্যক্ষ সংগ্রাম দিবস পালনের ডাক দিয়েছিল। হিংসায় উস্কানির অভিযোগে উঠেছিল মুসলিম লিগ নেতা তথা অবিভক্ত বাংলার মুখ্যমন্ত্রী হুসেন সুরাওয়ার্দির দিকে।

এদিকে বুধবার মুখ্যমন্ত্রী “খেলা হবে” স্লোগানে সাফল্যের কথা তুলে ধরেন। তিনি বলেন খেলা একটা হয়েছে। খেলা আবার হবে। যতদিন না বিজেপিকে বিদায় করতে পারি ততদিন রাজ্যে রাজ্যে খেলা হবে। সমস্ত জায়গায় খেলা হবে।‌ আর এরপরই বিজেপি নেতা স্বপন দাশগুপ্ত স্বাধীনতা পূর্বের কলকাতা হিংসার বিষয়টিকে স্মরণ করিয়ে দেন।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here