রাজ্যের বিপজ্জনক তিন জেলার পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে বিশেষ নজরদারি টিম পাঠাচ্ছে স্বাস্থ্যভবন

রাজেন রায়, কলকাতা, ১১ মে: এর আগে ৫ করোনা হাসপাতালে করোনা চিকিৎসা খতিয়ে দেখতে বিশেষ ৫ পরিদর্শক দল নামিয়েছিল রাজ্য স্বাস্থ্য দফতর। এবার করোনা সংক্রমণের গতি বৃদ্ধিতে জেলাভিত্তিক পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে গিয়ে দেখা গিয়েছে, কলকাতা, হুগলি ও দক্ষিণ ২৪ পরগনায় সংক্রমণের হার বেশি। সেই কারণে এসব এলাকায় বেড়েছে কনটেনমেন্ট জোনও। তাই পরিস্থিতি মোকাবিলায় ওই ৩ জেলাতেই প্রতিনিয়ত নজরদারি রাখতে কমিউনিটি মেডিসিন বিভাগের শিক্ষকদের নিয়ে পরিদর্শনে নামছে বিশেষ নজরদারি টিম।

মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিকদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে, ওই তিন জেলা অর্থাৎ কলকাতা, হুগলি ও দক্ষিণ ২৪ পরগনায় কনটেনমেন্ট জোনে নজরদারি, সংক্রমণ ঠেকানোর পাশাপাশি তথ্য সংগ্রহ করার জন্য। এরপরেই ৪ জন করে কমিউনিটি মেডিসিনের শিক্ষকদের নিয়ে বিশেষ দল তৈরি করে তাদের কাজ শুরুর নির্দেশ দিয়েছে স্বাস্থ্য ভবন। জানা গিয়েছে, সাগর দত্ত মেডিকেল কলেজ , ডায়মন্ড হারবার মেডিকেল কলেজ, বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল এবং ন্যাশনাল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের কমিউনিটি মেডিসিন বিভাগের ৪ জন করে চিকিৎসককে নিয়ে এই বিশেষ নজরদারি তিনটি দল তৈরি করা হয়েছে। ওই নির্দিষ্ট অঞ্চলগুলিতে ওই বিশেষ টিম তথ্য সংগ্রহ করবেন এবং কিভাবে সেখানে সংক্রমণ আটকানো যায় সেই বিষয়ে পরিকল্পনা করে করে স্বাস্থ্য ভবনকে তাঁরা প্রত্যেক দিন জানাবেন। কমিউনিটি মেডিসিন বিভাগের শিক্ষকদের নিয়ে তৈরি এই নজরদারি দল বিশেষ কয়েকটি বিষয়ের ভিত্তিতে সমীক্ষা চালাবে।

সংশ্লিষ্ট জেলার কোথায় কোথায় কনটেনমেন্ট জোন রয়েছে, সেই কনটেনমেন্ট জোনকে কিভাবে রক্ষা করা হবে, সেখানে কারা কারা আক্রান্ত হতে পারেন, কারা কারা আক্রান্ত হয়েছেন, কিভাবে পরীক্ষা করা উচিত, কতজন আক্রান্ত তা পুঙ্খানুপুঙ্খভাবে বিচার করা হবে। সেই জেলার কনটেনমেন্ট এলাকায় কি কি করা উচিত এবং কি কি তথ্য রয়েছে তা নিয়ে বিস্তারিত রিপোর্ট প্রতিদিন সন্ধে ছ’টার মধ্যে স্বাস্থ্য ভবনকে জানাবে ওই দল। সেই অনুযায়ী ওই জেলাতে পরবর্তী পরিকল্পনা ঠিক করবে স্বাস্থ্য দফতর। তবে এই দলকেও বিশেষ ভাবে সর্তকতা নিয়ে কাজ করতে বলা হয়েছে।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here