সিদ্দিকীর গ্রেফতারে ‘দি গ্রেট ক্যালকাটা কিলিং’-এর ছায়া দেখলেন তথাগত

আমাদের ভারত, ২৪ জানুয়ারি: আই এস এফ নেতা নওয়াজ সিদ্দিকীর গ্রেফতারের প্রেক্ষিতে ‘দি গ্রেট ক্যালকাটা কিলিং’-এর ছায়া দেখলেন প্রাক্তন রাজ্যপাল তথাগত রায়।

তথাগতবাবু মঙ্গলবার টুইটারে লিখেছেন, “আই এস এফ নেতা নওয়াজ সিদ্দিকীর গ্রেপ্তারের প্রতিবাদে ফুরফুরা শরীফের হ্রেষারব, “কলকাতা অচল করে দেব, শেষ দেখে ছাড়ব, ইনশাল্লাহ।”

তার পরেই তথাগতবাবু লিখেছেন, “আর তার পাশেই পশ্চিমবঙ্গ বিজেপি মুসলিমদের কাছে টানতে ‘সৌহার্দ্য যাত্রা’ করবে। হে মা কালী! আর কত কিছু দেখাবে, মা?”

ফুরফুরা শরীফের পীরজাদা ঘোষণা করেছেন যে নওয়াজ সিদ্দিকীকে মুক্তি না দেওয়া পর্যন্ত তারা ধর্মতলায় বসে অবস্থান করবে এবং কলকাতা শহরকে অচল করে দেবে। আমরা ১৯৪৬-এর ১৬ আগস্টের দূরবর্তী শব্দ এবং ‘গ্রেট ক্যালকাটা লিং’-এর আগে মুসলিম লীগের চিৎকার শুনতে পাচ্ছি?

প্রসঙ্গত, ১৯৪৬-এর ১৬ আগস্ট মুসলিম লীগ প্রত্যক্ষ সংগ্রামের ডাক দিয়েছিল। যার ফলশ্রুতি হয় কলকাতাজুড়ে বীভৎস হিন্দু বিরোধী দাঙ্গা ও হিন্দু গণহত্যা। এই দাঙ্গা বা হিন্দু গণহত্যা আকস্মিক ছিল না, এটি ছিল সুপরিকল্পিত এবং এবং এর পটভূমি অনেকদিন ধরেই রচিত হয়েছিল। মুসলিম লীগ বরাবর বিচ্ছিন্নতাবাদী রাজনীতি করেই আসতো তাদের জন্মলগ্ন থেকে। তাদের মূল বক্তব্য ছিল, তাদের লড়াই ইংরেজদের বিরুদ্ধে নয়, তাদের লড়াই হিন্দুদের বিরুদ্ধে। এই ধারা বজায় রেখেই ১৯৪০ সালের ২৩ শে মার্চ কুখ্যাত লাহোর প্রস্তাবে জিন্না বলেন,”ইসলাম ও হিন্দু তো শুধুমাত্র আলাদা ধর্ম নয় সম্পূর্ণ বিপরীত জাতিসত্তা।… মুসলমানরা সংখ্যালঘু নয়, মুসলমানরা একটা আলাদা জাতি। জাতি গঠনের সমস্ত প্রয়োজনীয় উপাদান তাদের মধ্যে আছে তাই অবশ্যই তাদের নিজেদের বাসভূমির অধিকার আছে।”

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here