মেদিনীপুর পুরসভায় টেলি কনফারেন্সে চিকিৎসা পরিষেবা

আমাদের ভারত, মেদিনীপুর, ২২ এপ্রিল: করোনা ভাইরাসের আতঙ্কে প্রাইভেট চেম্বারে রোগী দেখা বন্ধ করে দেওয়া চিকিৎসকদের রোগী দেখার জন্য বার বার অনুরোধ জানিয়েও ব্যর্থ হয়েছে প্রশাসন। সংক্রমণের ভয়ে প্রাইভেট চেম্বার খুলতে রাজি নন অধিকাংশ ডাক্তারবাবু। এক্ষেত্রে চিকিৎসা পরিষেবার সমস্যা দূর করতে উদ্যোগ নিল মেদিনীপুর পুরসভা। পুরসভা কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, ফোনের মাধ্যমে পুরসভা নিযুক্ত ডাক্তারবাবুদের সঙ্গে যোগাযোগ করা যাবে। নির্দিষ্ট সময়েই পাওয়া যাবে চিকিৎসা সংক্রান্ত সব রকম পরামর্শ ও পরিষেবা।

মেদিনীপুর পুরসভার প্রশাসক তথা সদর মহকুমাশাসক দীননারায়ণ ঘোষ জানিয়েছেন, মেদিনীপুর পুরসভা পরিচালিত তিনটি আরবান পাবলিক হেলথ সেন্টার আছে। সেগুলিতে একটি নির্দিষ্ট সময়ে পুরসভার অভিজ্ঞতাসম্পন্ন ডাক্তারবাবুরা বসবেন।  করোনা আবহে অন্যান্য রোগীদের চিকিৎসা সংকটের বিষয়টি ভেবে টেলি কনফারেন্সের মাধ্যমে চিকিৎসা পরিষেবা পৌঁছে দেওয়ার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। লকডাউনে ডাক্তাবাবুদের প্রাইভেট চেম্বারের উপর কোনও নিষেধাজ্ঞা না থাকলেও সংক্রমণের আশঙ্কায় প্রায় সব ডাক্তারবাবুই  প্রাইভেট প্র্যাকটিস বন্ধ রেখেছেন। সকলের চেম্বারের সামনেই নোটিশ ঝুলছে। সম্প্রতি  জেলা প্রশাসন ও স্বাস্থ্য দফতরের বৈঠকে জেলার আইএমএ সম্পাদক ডাঃ কৃপাসিন্ধু গাঁতাইতকে ডাক্তারবাবুদের প্রাইভেট চেম্বার খুলে পরিষেবা দেওয়ার উদ্যোগ নেওয়ার অনুরোধ জানানো হয় কিন্তু সংক্রমণের ভয়ে অধিকাংশ ডাক্তারবাবুই নিজেদের চেম্বার খুলতে চাইছেন না। চিকিৎসা সংকটে ভোগা সাধারণ মানুষের কিছুটা সুবিধার জন্যই ওই উদ্যোগ বলে জানিয়েছেন মহকুমা শাসক।

তিনি বলেন, পুরসভার তিনটি আরবান পাবলিক হেলথ সেন্টারে সোমবার থেকে শনিবার ছয়জন ডাক্তাবাবুকে কাজে লাগানো হচ্ছে টেলিকনফারেন্সের জন্য। ওই প্যানেলে থাকছেন চারজন এমবিবিএস এবং দুজন এমডি ডিগ্রিধারী চিকিৎসক। ৬২৯২২৩২১৯০ ও ৬২৯২২৩২১৯১ নম্বরে বেলা ১১টা থেকে ১ টা এবং ৬২৯২২৩২২১২ নম্বরে বিকাল ৪ টা থেকে ৫ টা পর্যন্ত ফোন করে করলে প্যানেলভুক্ত কোনও না কোনও ডাক্তারবাবুকে পাওয়া যাবে। তাদের কাছ থেকে রোগী ও তাদের আত্মীয়রা ফোন করে প্রয়োজনীয় পরিষেবা নিতে পারবেন।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here