অবৈধ সম্পর্কের জেরে উত্তেজনা, ভাঙ্গচুর, অগ্নিসংযোগ আরামবাগে

গোপাল রায়, আমাদের ভারত, আরামবাগ, ২৭ মে: এক মহিলার সাথে এক যুবকের অবৈধ সম্পর্কের জেরে অগ্নিগর্ভ হয়ে উঠল গোটা এলাকা জুড়ে। অবৈধ সম্পর্ক হাতেনাতে ধরে ফেলে এলাকার মানুষ। ওই যুবক নাকি স্থানীয় প্রধানের আত্মীয় বলে জানা গেছে। ডাক নিয়ে ফেরিঘাট চালায় ওই যুবক। তার টোল আদায়ের জায়গাতেও ভাঙ্গচুর ও অগ্নিসংযোগ করা হয়েছে। তার মোটর বাইকে আগুন লাগিয়ে দেয় স্থানীয়রা। পুলিশ ওই যুবককে আটক করেছে। ঘটনাটি ঘটেছে আরামবাগ কেশবপুর এলাকায়।

জানা গেছে, ওই এলাকার নইম উদ্দিন হক নামে এক যুবক একটি বাঁকে ফেরিঘাট চালাতেন। এলাকায় তৃণমূলের প্রধানের আত্মীয় বলে পরিচিত ওই যুবক। এলাকার এক মহিলার সাথে অবৈধ সম্পর্ক ছিল দীর্ঘদিন। ঘটনার সূত্রপাত, মঙ্গলবার রাতে ওই মহিলার বাড়িতে আসে নইম উদ্দিন হক। ওই সময় গ্রামের স্থানীয় বাসিন্দারা মহিলার বাড়িতেই তাকে হাতেনাতে ধরে ফেলে। এরপরই অগ্নিগর্ভ হয়ে ওঠে গোটা এলাকায়। ওই ব্যক্তিকে মারধর করে।এরপরে ওই মহিলার বাড়ির সামনে স্থানীয় বাসিন্দারা ব্যাপক বিক্ষোভ দেখায়। স্থানীয় বাসিন্দাদের কথায় একেই করোনাভাইরাস জেরে রেলকডাউন চলছে। বাইরের লোক এলাকায় ঢুকছে এই নিয়ে এলাকায় উত্তেজনা সৃষ্টি হয়। ফেরিঘাট ভাঙ্গচুর করে আগুন লাগিয়ে দেওয়া হয়। এরপরই নইমউদ্দিন হকের মোটরবাইকে আগুন ধরিয়ে দেয় স্থানীয় লোকজন। এলাকা অগ্নিগর্ভ হয়ে ওঠে।

গতকাল রাত থেকে বুধবার সকাল পর্যন্ত এলাকার রাস্তায় ব্যাপক বিক্ষোভ দেখায় স্থানীয়রা। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে বিশাল পুলিশবাহিনী গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এলাকায় উত্তেজনা থাকায় ও স্থানীয় বাসিন্দাদের বিক্ষোভের জেরে অভিযুক্ত নইমউদ্দিন হক কে পুলিশ আটক করে। মলয়পুর দুই নম্বর গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান শাহাআলম রফিক বলেন, যদি এইরকম জঘন্য কাজ করে থাকে তার শাস্তি হওয়া উচিত। অন্যায়কে প্রশ্রয় দেইনি।তবে বিরোধীরা এটা নিয়ে রাজনৈতিক করছে। এলাকায় একটা অশান্তির বাতাবরণ তৈরি করছে।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here