শাসকদলের চোখ রাঙানি ও পুলিশের হেনস্থার অভিযোগ, বন্ধ হয়ে গেল আরামবাগ টিভি চ্যানেল

গোপাল রায়, আরামবাগ, ১১ মে: শাসকদলের কথায় ছোট ইউটিউব চ্যানেল। তবু এই ছোট চ্যানেলই রাতের ঘুম কেড়েছে প্রশাসনের। লকডাউন এর মাঝেই আরামবাগ থানাতে রাতের অন্ধকারে ক্লাব কর্তারা লাইন দিয়ে অনুদানের টাকা নিচ্ছেন, সেই ছবিসহ খবর সম্প্রচার করার পরেই চাপ বাড়তে থাকে আরামবাগের জনপ্রিয় ইউটিউব চ্যানেল আরামবাগ টিভির এডিটর শফিকুল ইসলামের উপর।

আরামবাগ টিভি সূত্রে জানা যায়, পুলিশ ও শাসকদলের বিরুদ্ধে সত্য খবর প্রকাশ করায় আরামবাগের জনপ্রিয় ইউটিউব টিভি চ্যানেলের এডিটর সফিকুল ইসলামের বাড়িতে দুষ্কৃতিরা হানা দেয়। চাপের মুখে পড়ে সম্প্রচার বন্ধ করে দেয় কর্তৃপক্ষ। আরামবাগ টিভির কর্তৃপক্ষের অভিযোগ, তাদের উপর পুলিশী নির্যাতন চলছে। আরামবাগ মহকুমা শাসকদলের ও পুলিশ প্রশাসনের অন্যায়ের বিরুদ্ধে সংবাদ পরিবেশন করে মানুষের কাছে তুলে ধরতেন আরামবাগ টিভি উইটিউইব চ্যানেলের মাধ্যম দিয়ে। আর এই চ্যানেলের মাধ্যমে পুলিশ প্রশাসনের ও শাসকদলের পর্দা ফাঁস হয়ে যাচ্ছে দেখে চ্যানেলের এডিটর সফিকুল ইসলাম ও রিপোর্টার সুরোজ আলি খানকে তাদের গলা টিপে রাখতে তাদের বিরুদ্ধে নানা কেসে জর্জরিত করার চেষ্টা হচ্ছে বলে অভিযোগ।

জানা গেছে, যেকোনো সময় আরামবাগ টিভির সম্পাদক সফিকুল ইসলাম গ্রেফতার হতে পারেন বলে আশংকা করা হচ্ছে। এই ঘটনায় নিন্দায় সরব হয়েছে সংবাদমাধ্যম, বুদ্ধিজীবী থেকে শুরু করে রাজনৈতিক মহল। তাঁরা পাশে থাকার আশ্বাস দেন। গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভর মর্যাদা পাওয়া সংবাদ মাধ্যমের ওপর শাসকদলের এই আচরণের বিরোধিতা করে মুখ খুলেছে শাসক-বিরোধী সমস্ত রাজনৈতিক দল।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here