ব্যাঙ্গালোর থেকে পশ্চিমবঙ্গের মানুষের জন্য সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিল বঙ্গীয় সমাজ

প্রদীপ কুমার দাস, আমাদের ভারত, ১৭ এপ্রিল: ব্যাঙ্গালোর থেকে পশ্চিমবঙ্গের মানুষের জন্য সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিল বঙ্গীয় সমাজ। বিভিন্ন জেলায় রাজনৈতিক নেতাদের মাধ্যমে অসহায় মানুষের মধ্যে চাল বিলির ব্যবস্থা করল তারা। শুধু তাই নয়, ব্যাঙ্গালোর সহ কর্ণাটকে এই রাজ্য থেকে যাওয়া ১৫ হাজারের বেশি মানুষকে তারা থাকা-খাওয়ার ব্যবস্থাও করে দিয়েছে। এইজন্য ধন্যবাদ জানিয়েছেন কংগ্রেস সাংসদ অধীর চৌধুরী এবং বিজেপি সাংসদ সুকান্ত মজুমদার।

বঙ্গীয় সমাজের সভাপতি সৌরভ মুখার্জি ফোনে জানিয়েছেন, এখানে আটকে পড়া মানুষদের সাহায্য করার অনুরোধ জানিয়েছিলেন সাংসদ অধীর চৌধুরী, সুকান্ত মজুমদার, সৌমিত্র খাঁ, নিশিথ প্রামানিক, খগেন মুর্মু সহ আরো অনেকে। তাদের সেই অনুরোধকে গুরুত্ব দিয়ে ওই সাংসদ এলাকার থেকে আসা ১৫ হাজারেরও বেশি মানুষকে থাকা-খাওয়ার ব্যবস্থা করে দেওয়া হয়েছে। শুধু তাই নয়, এবার তারা পশ্চিমবঙ্গের মানুষের দিকেও সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন। ইতিমধ্যেই তারা ব্যারাকপুর লোকসভা কেন্দ্রের কয়েকটি এলাকায় বিজেপি সাংসদ অর্জুন সিংহের সহায়তায় ১২০০ পরিবারকে চাল দিয়ে সাহায্য করেছেন।

কংগ্রেস সাংসদ অধীর চৌধুরীর এবং বালুরঘাটের বিজেপি সাংসদ সুকান্ত মজুমদারকে ৮০০ কেজি করে চাল পাঠিয়েছে বঙ্গীয় সমাজ। দুই সাংসদই ভিডিও বার্তায় তা জানিয়েছেন। অধীর চৌধুরী এই কারণে তাঁর কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন বঙ্গীয় সমাজের প্রতি। তিনি বলেছেন, পশ্চিমবঙ্গ থেকে চিকিৎসা করার জন্য বা অন্য কাজে যারা গিয়েছিলেন তাদের পাশে দাঁড়িয়েছে বঙ্গীয় সমাজ, তাই তাদের কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি। এছাড়া তাঁর এলাকায় ৮০০ কেজি চাল পাঠানোর জন্য তিনি ধন্যবাদ জানিয়ে বলেছেন, “আমার এলাকার দরিদ্র মানুষের জন্য ৮০০ কেজি চাল পাঠিয়েছে বঙ্গীয় সমাজ। এই চাল গরিব মানুষের মধ্যে বন্টন করে দেবো। তাই আমি বারবার কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি বঙ্গীয় সমাজকে। বিপদের দিনে যাঁরা পাশে থাকে তারাই প্রকৃত বন্ধু। তাই ব্যাঙ্গালোরের বঙ্গীয় সমাজ আপামর বাঙালির প্রকৃত বন্ধু।

সাংসদ সুকান্ত মজুমদারও একইভাবে তাঁদের ধন্যবাদ জানিয়েছেন। তিনিও ভিডিও বার্তায় বলেছেন, এই লোকসভা থেকে যে সমস্ত মানুষ গিয়েছিলেন রোগী দেখাতে তাদের পাশে দাঁড়িয়েছে বঙ্গীয় সমাজ, ছাড়া বহু শ্রমিক সেখানে আটকে পড়েছে তাদের পাশে দাঁড়িয়েছে তাঁরা। ৮০০ কেজি চাল পাঠানোর জন্য তিনি বিশেষভাবে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেছেন, বালুরঘাটের মত পিছিয়ে পড়া লোকসভা কেন্দ্র, যেখানকার মানুষ আর্থিকভাবে খুব দুর্বল তাদের জন্য ৮০০ কেজি চাল পাঠিয়েছে বঙ্গীয় সমাজ। এজন্য তাদের ধন্যবাদ জানাচ্ছি। সকলের কাছে আবেদন আপনারা বঙ্গীয় সমাজের পাশে দাঁড়ান, তাদের সাহায্য করুন। বিপদের দিনে তাহলে তারা আরো সাহায্য করতে পারবেন আমাদের।

এ ব্যাপারে বঙ্গীয় সমাজের সভাপতি সৌরভ মুখার্জি বলেন, পশ্চিমবঙ্গের বহু মানুষ এই সময়ে সমস্যায় আছে। অনেকেই তাদের সাহায্য করছে, কিন্তু তাও অনেকে পাচ্ছেন না। কারণ এই কর্নাটকে যে সমস্ত পরিযায়ী শ্রমিকরা আটকে পড়েছেন তারাই জানিয়েছেন, গ্রামে তাদের পরিবারের লোকজন প্রায় না খেয়ে রয়েছে। তাই আমরা সাহায্য করার চেষ্টা করছি। মুর্শিদাবাদ, ব্যারাকপুর, বালুরঘাট ছাড়াও আমরা বসিরহাটের কিছু এলাকায় সাহায্যের কাজ শুরু করেছি। তিনি বলেন, আমরা তো কোনো সরকারি সংস্থা নয়, তাই আমরা আমাদের সীমি সামর্থ্য দিয়ে এলাকার সাংসদ, বিধায়কদের সঙ্গে যোগাযোগ করে মানুষকে সাহায্য করার চেষ্টা করছি। একইভাবে বাঁকুড়া এলাকার গরিব মানুষদের সাহায্য পৌঁছে দেওয়ার জন্য আমরা সাংসদ সৌমিত্র খাঁকে অনুরোধ করেছি।
সম্প্রতি মুখ্যমন্ত্রী ঘোষণা করেছেন, বিভিন্ন রাজ্যে আটকে পড়া শ্রমিকদের আর্থিক সাহায্য করবেন। কীভাবে তা অসহায় মানুষের কাছে পৌঁছবে তার একটা রূপরেখা ঘোষণা করার আবেদন জানিয়েছেন সৌরভবাবু। তা হলে সেই বার্তা তাঁরা আটকে পড়া অসহায় শ্রমিকদের কাছে পৌঁছে দেবেন, তাতে তারা উপকৃত হবেন।

2 মন্তব্যসমূহ

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here