অর্ধ সমাপ্ত কাজ হয়েও রাস্তা সম্পূর্ণ হওয়ার তথ্য দিয়ে বোর্ড বসল ঝালদার কাড়িওর গ্রামে, প্রতিবাদ গ্রামবাসীদের

সাথী দাস, পুরুলিয়া, ৮ আগস্ট: এ যেন রাস্তা চুরি। অর্ধ সমাপ্ত কাজ হয়েও সম্পূর্ণ হওয়ার তথ্য দিয়ে বোর্ড বসল। রাস্তা না হওয়ার ফলে দুর্ভোগের মধ্যেই থাকলেন গ্রামবাসীরা। এর প্রতিবাদে সরব হলেন তারা। ঘটনাটি ঝালদা ২ ব্লকের রিগিদ গ্রাম পঞ্চায়েতের কাড়িওর গ্রামের।

প্রাচীন জন পদ। স্বাধীনতার ৭৫ বছর হয়ে গেলেও যেন পরাধীন দেশে বসবাস করছেন ঝালদা ২ ব্লকের রিগিদ গ্রাম পঞ্চায়েতের কাড়িওর, বেটোদ ও তহদ্রী গ্রামের বাসিন্দারা। গ্রামের মানুষ বিশাল কিছু দাবি করেনি। নূন্যতম সুযোগ সুবিধা, যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নতি ও রাস্তার দাবি করে আসছিলেন তারা। যদিও বা রাস্তার কাজ শুরু হয়েছিল। জমিজট নয় অজানা কারণে ঠিকাদার কাজ শেষ না করেই পালিয়ে যান। ওই পঞ্চায়েতের কাড়িওর গ্রামের কংক্রিট রাস্তা নির্মাণ অর্ধসমাপ্ত হয়ে পড়ে রয়েছে।

এবিষয়ে স্থানীয় গ্রামবাসী শ্রীমন্ত মাহাতো, সাকরা সিং মুড়া, মদন সরেন, আশারাম মাঝি ও রোহিন মাহাতো জানান, আমরা এই রাস্তা নির্মাণে অনিয়ম দেখতে পাচ্ছি। রাস্তাটি মহাত্মা গান্ধী জাতীয় গ্রামীণ কর্মসংস্থান গ্যারান্টি স্কিম থেকে ৪০ লক্ষ ১৬ হাজার ৭০৬ টাকা বরাদ্দে কাড়িওর শিব মন্দির থেকে জাটা নদী পর্যন্ত সাড়ে তিন কিলোমিটার কংক্রিটের রাস্তা হওয়ার কথা। কিন্তু কাড়িওর শিব মন্দির থেকে কাজ শুরু হয়েছিল মার্চ মাসে। মাত্র ১০০ মিটার রাস্তা তৈরী করে বোর্ড লাগিয়ে কাজ বন্ধ করে চলে যান ঠিকাদার। গ্রামবাসীদের অভিযোগ, রাস্তা নির্মাণ সম্পূর্ণ না করে টাকা আত্মসাৎ হয়েছে। তারা চান বোর্ডে উল্লেখিত রাস্তা নির্মাণ করতে হবে। এই রাস্তার উপর ভরসা করেই কাড়িওর- বেটোদ- তোহদ্রী সহ বেশ কয়েকটি গ্রামের কোটশিলা ও ঝালদার সাথে যোগাযোগ।

যদিও বিষয়টি নিয়ে গ্রাম পঞ্চায়েত সদস্যা মেহিবালা মাঝি বলেন, “যতটা টাকা ছিল কাজ হয়েছে। টাকা এলেই কাজ সম্পূর্ণ হবে।”

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here