সুপারি কিলার দিয়ে দাদাকে খুন করানোর অভিযোগ উঠল ভাইয়ের বিরুদ্ধে, চাঞ্চল্য শ্রীরামপুরে

আমাদের ভারত, হুগলি, ১৪ মে: পৈত্রিক সম্পত্তি কবজা করতে সুপারি কিলার দিয়ে দাদাকে খুন করানোর অভিযোগ উঠল ভাইয়ের বিরুদ্ধে। বৃহস্পতিবার এই রোমহষর্ক ঘটনাটি ঘটেছে শ্রীরামপুরের রাজ্যধরপুর গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকায়। এই ঘটনার তদন্তে নামে শ্রীরামপুর থানার পুলিশ। শনিবার সুপারি কিলার সহ ধৃত দুই জনকে শ্রীরামপুর আদালতে তোলা হয়। পুলিশ জানিয়েছে, ধৃতরা হল সুপারি কিলার কৃষ্ণ সরকার ও উজ্জ্বল দাস।

পুলিশ জানিয়েছে, মৃতের নাম গৌতম দাস। তিনি গৃহশিক্ষকতা করতেন। বিয়ে করেননি। গৌতম বাবুরা চার ভাই। তারমধ্যে এক জন মানসিক ভারসাম্যহীন। গৌতমদের রাজ্যধরপুর গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকায় প্রায় ৮ কোটি টাকার পৈত্রিক সম্পত্তি রয়েছে। সেই সম্পত্তির লোভেই উজ্জ্বল কৃষ্ণর সঙ্গে যোগসাজস করে গৌতমকে খুনের চক্রান্ত করে। কৃষ্ণর সঙ্গে ২৫ হাজার টাকার রফা হয় উজ্জলের। খুনের আগে অগ্রিম ৫ হাজার টাকা নেয় কৃষ্ণ। খুনের পর বাকি ২০ হাজার টাকা দেওয়ার কথা হয়। কিন্তু খুনের পরেই পুলিশের জালে ধরা পরে অভিযুক্তরা। পুলিশি জেরায় কৃষ্ণ স্বীকার করেছে গৌতমকে মারধর করে গলা টিপে মেরে পুকুরে ফেলে দেয়।

পুলিশ বৃহস্পতিবার গভীর রাতেই পুকুর থেকে গৌতমের দেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তে পাঠানোর পরেই মৃতের আরেক ভাই উৎপল শ্রীরামপুর থানায় খুনের অভিযোগ দায়ের করেন। তারপরেই খুনের কিনারা করে পুলিশ।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here