অবৈধ সম্পর্কের জের! অশোকনগরে ঘর থেকে যুবকের অগ্নিদগ্ধ দেহ উদ্ধার, মৃত্যুর কারণ নিয়ে ধোঁয়াশায় পরিবার

আমাদের ভারত, উত্তর ২৪ পরগণা, ৫ ফেব্রুয়ারি: নিজের ঘর থেকে অগ্নিদগ্ধ অবস্থায় মৃতদেহ উদ্ধার যুবকের। মৃত্যুর কারণ নিয়ে ধোঁয়াশায় পরিবার। প্রতিবেশী এক মহিলার সঙ্গে বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্ক নিয়ে গণ্ডগোল হয় বৃহস্পতিবার। তার জেরে আত্মহত্যা কি না তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার গভীর রাতে ঘটনাটি ঘটেছে অশোকনগরের হরিপুর এলাকায়।

জানাগেছে, মৃত যুবকের নাম সুমন সিংহ (৩৬)। অবিবাহিত সুমন একটি বেসরকারি কোম্পানিতে সেলসম্যানের কাজ করতেন, তবে বছর খানেক ধরে কর্মহীন হয়ে পড়েছিলেন। যার ফলে মানসিক অবসাদে মাঝেমধ্যেই মদ্যপান করতেন বলে পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে। বৃহস্পতিবার রাত বারোটা নাগাদ হঠাৎ দোতলা ঘর থেকে আওয়াজ শুনতে পায় সুমনের ছোট ভাই এবং তাঁর বাবা ছুটে গিয়ে দেখেন দরজা জানলা দিয়ে ধোঁয়া বেরোচ্ছে। ডাকাডাকি সত্ত্বেও কোনো সাড়া না পেয়ে দরজা ভেঙ্গে ভেতরে ঢুকে দেখতে পান খাটের তোষক দাউদাউ করে জ্বলছে, সেই আগুনে ঝলসে দিয়েছে সুমনের দেহ। এরপর প্রতিবেশী ও পরিবারের সদস্যদের চেষ্টায় আগুন নেভানো হয়।

আশঙ্কাজনক অবস্থায় সুমনকে নিয়ে যাওয়া হয় হাবড়া স্টেট জেনারেল হাসপাতালে। সেখানে ডাক্তার তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন। পরিবারের প্রাথমিক অনুমান, বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্কের জেরে প্রতিবেশী মহিলার সঙ্গে গণ্ডগোল হয় মৃত যুবকের, তার জেরে আত্মহত্যা করে থাকতে পারে সুমন সিংহ। শুক্রবার দেহের ময়নাতদন্ত করা হবে বারাসাত জেলা হাসপাতালে। এলাকার বাসিন্দারা জানিয়েছে বৃহস্পতিবার বিকেলে প্রতিবেশী এক মহিলার সঙ্গে সুমন ও তার পরিবারের উত্তপ্ত বাক্য বিনিময় হয়। অশোক নগর থানার পুলিশ গোটা ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here