“মুখ্যমন্ত্রী চাকরি বিক্রি করেছেন তাই তাকেই চাকরির গ্যারান্টি দিতে হবে”, প্রাথমিক শিক্ষক ইস্যু নিয়ে বললেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি

পিন্টু কুন্ডু, বালুরঘাট, ২১ জুন: মুখ্যমন্ত্রী চাকরি বিক্রি করেছেন তাই তাকেই চাকরির গ্যারান্টি দিতে হবে, বালুরঘাটে বললেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদার। রাজ্যজুড়ে প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ নিয়ে দুর্নীতির অভিযোগে আদালতের রায়ে ইতিমধ্যেই চাকরি খুইয়েছেন বেশকিছু ছেলে মেয়ে। আরো অনেকেই চাকরি হারানোর আশঙ্কায় দিন গুনছেন।

তারই মাঝে সোমবার রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছেন, “বিজেপি চাকরি খায়, আমরা চাকরি দিই”। যার পরিপ্রেক্ষিতে এদিন বক্তব্য দিতে গিয়ে বিজেপির রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদার বলেন, মুখ্যমন্ত্রী নানা উস্কানিমূলক কথা বলছেন। তিনি বলছেন, এই ১৭ হাজারের চাকরি গেলে বিচারপতির বাড়ি ঘেরাও করতে হবে। এসব উস্কানিমূলক কথা একজন মুখ্যমন্ত্রীর মুখ থেকে মানায় না। তারা চুরি করেছেন, ১৫ লক্ষ থেকে ২০ লক্ষ টাকায় চাকরি বিক্রি করেছেন। সেই লোকগুলোর কাছ থেকে টাকা নিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী ও তার দলবলের লোকেরা। তাদের চাকরির গ্যারান্টি দিতে হবে তাছাড়া পিঠের চামড়া তুলে নেবেন এই লোক গুলো যারা টাকা দিয়েছে এবং চাকরি হারিয়েছে। তৃণমূল নেতাদের গাছে বেঁধে ইতিমধ্যে পেটানো শুরু হয়েছে বিভিন্ন জায়গায় বলেও জানিয়েছেন সুকান্ত মজুমদার। শুধু তাই নয়, বিভিন্ন নেতাদের যারা চাকরির জন্য টাকা দিয়েছেন, কম নাম্বার পেয়েও যাদের চাকরি হয়েছে। তাদের চাকরিটা তো চলে যাবে। অন্যদিকে অনেকে টাকা দিয়েও চাকরি পাননি। আর এই দুইয়ে মিলে আগামীতে মুখ্যমন্ত্রী ও তার দলের লোকেদের ঘর থেকে বেরোনোয় বন্ধ করে দেবে ক্ষিপ্ত মানুষ। এদিন সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে মুখ্যমন্ত্রী ও শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেসকে প্রাথমিক শিক্ষকের চাকরি ইস্যু নিয়ে জোড়ালো আক্রমণ করেছেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি।

সুকান্ত মজুমদার বলেন, হাইকোর্টে মাণিক ভট্টাচার্যকে হাজিরার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।মানিক ভট্টাচার্যের উচিত সকলের নাম বলে দেওয়া এবং কারা এর সাথে যুক্ত রয়েছে সবকিছুই বলে দেওয়া উচিত। যেহুতু তার মাধ্যমে এসব হয়েছে সুতরাং তাকে তো আদালতে হাজিরা দিতেই হবে। এসব কিছু তিনি একা করেননি তৃণমূল কংগ্রেস থেকে নির্দেশ এসেছিল তাই করেছেন।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here