নবান্ন থেকে পূর্ব মেদিনীপুর জেলার আটটি পুজোর উদ্বোধন করলেন মুখ্যমন্ত্রী, অনুপস্থিত অধিকারী পরিবার

আমাদের ভারত, পূর্ব মেদিনীপুর, ১৬ অক্টোবর : মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নবান্ন থেকে পূর্ব মেদিনীপুর জেলার আটটি পূজামণ্ডপের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করলেন ভার্চুয়াল ভাবে। মাত্র দু’দিন আগেও নবান্ন থেকে জেলাশাসকের কাছে খবর আসে যে, ১৫ তারিখ এই জেলার দুর্গাপুজোর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করবেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কোভিডের কারণে বহু পুজো উদ্যোক্তা এবছর পুজো করবেন কি না সেই নিয়ে দোটানায় ছিলেন। পরে সরকারি অনুমতি মেলায় দেরি করেই সবাই প্যান্ডেল তৈরি ও প্রতিমা তৈরীর কাজ শুরু করেন।

পুজোর এখনো সাত দিন বাকি, ফলে অধিকাংশ প্যান্ডেল তৈরি হয়নি এখনো। বহু প্রতিমাতেই এখনো রং চড়েনি। এর মধ্যে এই নির্দেশে কিছুটা অস্বস্তিতে পড়েন জেলা প্রশাসন এবং ক্লাব কর্তারা। এই পরিস্থিতির মধ্যেই জেলার আটটি ক্লাবকে বেছে নেওয়া হয় আজকের এই উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের জন্য। রাতদিন এক করে
ক্লাবগুলি উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের জন্য প্রস্তুতি শুরু করে। আজ বিকেল চারটায় নবান্ন থেকে মুখ্যমন্ত্রী এই আটটি ক্লাবের পুজোর উদ্বোধন করেন। এই আটটি ক্লাবের মধ্যে ছিল তমলুকের ইয়ুথ স্পোর্টিং ক্লাব ও তাম্রলিপ্ত আদি সার্বজনীন দুর্গোৎসব কমিটির পুজো। বাকি ক্লাব গুলোর মধ্যে নন্দকুমারের স্পোর্টস এন্ড কালচারাল সেন্টারের পুজো, মহিষাদলের সানডে ক্লাবের পুজো, চন্ডিপুর ব্লক চৌখালির আদি সার্বজনীন দুর্গোৎসব, পাঁশকুড়া প্রতাপপুর দুর্গাপূজা কমিটি পুজো, এগরার ফ্রেন্ডস ক্লাবের পুজো ও রামনগর বাজার ব্যবসায়ী সমিতির পুজো।

তমলুকের ইয়ুথ স্পোর্টিং ক্লাবের উদ্বোধনে উপস্থিত ছিলেন জেলাশাসক পার্থ ঘোষ এবং জেলা পুলিশ সুপার সুনীল কুমার যাদব। রামনগরে ছিলেন বিধায়ক আখিল গিরি। বাকিগুলোর প্রত্যেকটাতে কোনও কোনও সরকারি আধিকারিক সহ তৃণমূলের একাধিক নেতা ও নেত্রী উপস্থিত ছিলেন। তবে জেলার এই আটটি পুজোর কোনোটাতেই শিশির অধিকারী সহ অধিকারী পরিবারের কাউকে দেখা যায়নি।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here