করোনাতঙ্কের জেরে নবান্ন থেকে উপান্নে স্থানান্তর হচ্ছে মুখ্যমন্ত্রীর দফতর

রাজেন রায়, কলকাতা, ৮ আগস্ট: নবান্নে প্রশাসনিক কাজের চাপ কমাতে তার পাশেই একটি অ্যানেক্স ভবনের উদ্বোধন করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। কিন্তু ঊর্ধ্বগামী করোনাতঙ্কে সেই ভবনটিই এখন হতে চলেছে রাজ্য প্রশাসনের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ ভবন। নবান্ন সূত্রের খবর, মুখ্যমন্ত্রী-সহ বেশ কয়েকজন গুরুত্বপূর্ণ প্রশাসনিক কর্তা ব্যক্তিদের নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করতে নবান্ন লাগোয়া নতুন অ্যানেক্স বিল্ডিং ‘উপান্ন’ ভবনে তাদের দফতর স্থানান্তর করা হচ্ছে। সব কিছু ঠিক থাকলে চলতি আগস্ট মাসের শেষে অথবা সেপ্টেম্বরের গোড়ায় উপান্ন থেকে কাজ শুরু করতে পারেন মুখ্যমন্ত্রী।

প্রসঙ্গত, নবান্নে বিভিন্ন লোকের আনাগোনা হওয়ায় বারবার সংক্রমণের সম্ভাবনা বাড়ছে। বর্তমান পরিস্থিতিতে নবান্নে একাধিক কর্মী ও আধিকারিকের করোনা সংক্রমণ হয়েছে। নবান্নের মূল প্রবেশদ্বার থেকে ১৪তলা পর্যন্ত সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়েছে। একের পর এক অফিসার, হাউসকিপিং স্টাফ এবং গাড়ির চালক করোনায় আক্রান্ত হচ্ছেন। অন্যদিকে বিশাল ওই ভবনটিকে বার বার স্যানিটাইজেশনের জন্য বন্ধ রাখতে গিয়ে কাজকর্মও ব্যহত হচ্ছে।সেই কারণে দৈনন্দিন প্রশাসনিক কাজ যাতে ব্যাহত না হয়, তার জন্য ‘উপান্ন’-তে দফতর সরানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে জানা গিয়েছে।

২২ জুলাই উদ্বোধনের সময়েই নবান্নের চাপ কমাতে সেখান থেকে বেশ কয়েকটি দফতর ওই ভবনের সরিয়ে নিয়ে যাওয়ার পাশাপাশি সেখানে একটি অতিথিশালা করার প্রাথমিক পরিকল্পনার কথা ঘোষণা করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। কিন্তু পরিবর্তিত পরিস্থিতিতে আপাতত ওই পরিকল্পনা রদ করা হয়েছে। জানা গিয়েছে, ইতিমধ্যেই মুখ্যমন্ত্রীর নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা স্পেশাল সিকিউরিটি উইংয়ের আধিকারিকরা উপান্ন পরিদর্শন করেছেন। মুখ্যমন্ত্রীর নেতৃত্বে আধিকারিকদের যে টিম এই বিপর্যয় পর্বে নিরন্তর কাজ করে চলেছেন, করোনা আবহে তাঁরা ছাড়া আরও কারও প্রবেশাধিকার থাকবে না এই ভবনে। এমনটাই নবান্নের তরফে ঠিক করা হয়েছে। মুখ্যমন্ত্রীর নবান্ন থেকে একদম আলাদা একটি ভবনে চলে গেলে তার পক্ষে সংক্রমণ এড়ানো সম্ভব হবে বলে দাবি প্রশাসনিক সূত্রের।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here