রাজ্য সরকারের কাছে পাওনা কোটি টাকা, না মেটানোয় স্বেচ্ছা মৃত্যুর আবেদন মালদার ঠিকাদারের

আমাদের ভারত, মালদা, ৯ আগস্ট: পশ্চিমবঙ্গ সরকারের কাছে পাওনা রয়েছে প্রায় এক কোটি টাকা। বারবার আবেদন করেও পাওনা টাকা মেটাচ্ছে না রাজ্য সরকার, এমনই অভিযোগ এক ঠিকাদারের। পাওনা টাকা দাবি করায় তার গাড়িটি আটক করেছে মহকুমা শাসক। এমনই অভিযোগ তুলে এবার মুখ্যমন্ত্রী এবং রাষ্ট্রপতির কাছে আবেদন করলেন। আবেদনে লিখেছেন, হয় পাওনা টাকা মেটান না হলে স্বেচ্ছামৃত্যুর নির্দেশ দিন। এই আবেদন করেছে মালদার চাঁচোলের এক ঠিকাদার। এই ঘটনায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে।

জানাগেছে, ওই ঠিকাদারের নাম জয়ন্ত প্রামানিক। মালদার চাঁচলের প্যান্ডেল পাড়ার বাসিন্দা। তিনি বলেন, পূর্ত দপ্তরে তিনি প্রায় ৫০ লক্ষ টাকার কাজ করেছেন ও ২০১৯ সালে মহকুমাশাসকের বাংলো সংস্কার সহ নির্বাচনের বেশ কিছু কাজ করেছেন। সব মিলিয়ে তাঁর প্রায় এক কোটি টাকা রাজ্য সরকারের কাছে পাওনা রয়েছে। কিন্তু বারবার দাবি করেও রহস্যজনক কারণে সরকার তাঁর টাকা মেটাচ্ছে না। সমস্ত কাজের ইনস্পেকশন হয়ে গেছে তাও তিনি টাকা পাচ্ছেন না। মানুষের কাছ থেকে সুদে টাকা নিয়ে তিনি এই কাজ করেছিলেন, ফলে পাওনাদাররা প্রতিদিনই তাঁর বাড়িতে চড়াও হচ্ছে। ফলে তিনি দেনার দায়ে জর্জরিত হয়ে গেছেন। এই কারণেই পাওনা টাকা দাবি করছেন। মহকুমা শাসকের কাছে পাওনা টাকা চাইতে গেলে তার ব্যক্তিগত গাড়িটিকে মহকুমা শাসক আটক করে নিয়েছেন বলে ওই ঠিকাদারের অভিযোগ। হয় তার টাকা মেটানো হোক না হলে তাঁকে স্বেচ্ছামৃত্যুর নির্দেশ দেওয়া হোক এমনই তিনি আবেদন জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী ও রাষ্ট্রপতির কাছে।সরকারের ভূমিকা নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন ওই ঠিকাদারের স্ত্রী দেবযানি প্রামানিক।

বিজেপির মালদা জেলার সহ-সভাপতি অজয় গঙ্গোপাধ্যায় বলেন, এই সরকারের আমলে কাট মানি না দিলে টাকা পাওয়া খুবই মুশকিল। সরকারের উচিত ঠিকাদারের পাওনা টাকা মিটিয়ে দেওয়া।

তৃণমূলের মালদা জেলার মুখপাত্র শুভময় বসু বলেন, হয়তো কাগজপত্র সংক্রান্ত কোনও সমস্যা হচ্ছে। না হলে ওই ঠিকাদার সঠিক ভাবে তার টাকা পেয়ে যাবেন।
চাঁচলের মহকুমা শাসক সব্যসাচী রায় গাড়ি আটক করার অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। তিনি বলেন, সরকার থেকে টাকা আসলে সেই টাকা মিটিয়ে দেওয়া হবে তার হাতে কিছুই নেই।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here