তিন বছর আগে মৃত ব্যক্তির কঙ্কাল তুলে ফরেনসিক পরীক্ষার নির্দেশ দিল আদালত

আমাদের ভারত, মেদিনীপুর, ৩ মার্চ: তিন বছর আগে কবর দেওয়া মৃত ব্যক্তির কঙ্কাল তুলে ফরেনসিক পরীক্ষার নির্দেশ দিয়েছে মেদিনীপুর জেলা আদালত। ২০১৭ সালের কেশপুর থানার মাজুরিয়া গ্রামের বাসিন্দা শেখ লোকমানের অস্বাভাবিক মৃত্যুর ঘটনা ঘটে। সেই সময় মৃতের স্ত্রী সখিসোনা বিবি দাবি করেন, তার স্বামী লোকমান বিষ খেয়ে আত্মহত্যা করেছে। এরপর  মৃতদেহের ময়নাতদন্ত না করেই কবর দিয়ে দেওয়া হয়। মৃতের মা শেরজুনা খাতুন বিবির অভিযোগ ছিল, বৌমার অবৈধ সম্পর্কের জেরে এই তার ছেলেকে খুন হতে হয়েছে খুন হয়েছে। বৌমা সখিসোনা বিবি তার গ্রামের এক সঙ্গীকে নিয়ে তার ছেলেকে শ্বাসরোধ করে খুন করার পর মুখে বিষ ঢেলে দিয়েছে বলে অভিযোগ তুলে আদালতের দ্বারস্থ হয় মৃতের মা সেরজুনা খাতুন বিবি। তার আরও অভিযোগ, ছেলের মৃত্যুর দিন তাকে ও তার স্বামী শেখ আশরাফ  আলীকে গাছে বেঁধে রেখে দলিলে জোর করে সই করিয়ে প্রায় ১০ বিঘা জমি হাতিয়ে নিয়ে ভিটেমাটি ছাড়া করে দেওয়া হয়। 

বিষয়টি নিয়ে সেই সময় কেশপুর থানার দ্বারস্থ হলেও থানা কোনও সাহায্য করেনি বলে শেরজুনা খাতুন বিবির অভিযোগ। এরপরে মৃতের বাবা-মা মেদিনীপুর জেলা আদালত থেকে মামলা দায়ের করে। সম্প্রতি মামলার গুরুত্ব বিচার করে ম্যাজিস্ট্রেট ও ফরেনসিক এক্সপার্টদের উপস্থিতিতে কবর থেকে সেই কঙ্কাল বের করে ফরেনসিক তদন্ত করার নির্দেশ দেয় আদালত। 

আদালতের নির্দেশ পেয়ে মেদিনীপুর সদরের মহকুমা শাসক দীননারায়ণ রায় আজ মঙ্গলবার ৩ মার্চ ২০২০ কবর থেকে মৃতদেহ তোলার জন্য ম্যাজিস্ট্রেট পাঠানোর সিদ্ধান্ত নেন।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here