করোনা আক্রান্তদের মৃতদের বন্দর শ্মশ্মানে দাহ করা যাবে না, এই দাবিতে অবরোধ

আমাদের ভারত, উত্তর দিনাজপুর, ৪ এপ্রিল: করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃতদের যাতে বন্দর শ্মশ্মানে দাহ বা মাটিতে পুঁতে দেওয়া না হয় এবং শহরের যত আবর্জনা বর্জ্য পদার্থ এখানে যাতে ফেলা না হয় তারই দাবিতে পথ অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখালেন স্থানীয় বাসিন্দারা। ঘটনাটি ঘটেছে রায়গঞ্জ শহরের বন্দর শ্মশ্মান কলোনি এলাকায়। এলাকায় প্রতিদিনের ফেলা বর্জ্য পদার্থ থেকে করোনা ভাইরাসের থেকেও মারাত্মক দূষণ ছড়াচ্ছে কলোনি এলাকায়, এই অভিযোগ তুলে শ্মশানঘাটে ঢোকার মুখে রাস্তা আটকে বিক্ষোভ দেখায় স্থানীয় বাসিন্দারা।

রায়গঞ্জ পুরসভার ৩ নম্বর ওয়ার্ডে অবস্থিত বন্দর শ্মশানঘাট। এই শ্মশানঘাটে মৃতদেহ সৎকার করার জন্য দুটি সাধারন চুল্লির পাশাপাশি একটি বৈদ্যুতিক চুল্লিও আছে। শ্মশানঘাট এলাকার কলোনির বাসিন্দারা জানিয়েছেন, গতকাল উত্তর দিনাজপুর জেলা প্রশাসন ও রায়গঞ্জ পুর কর্তৃপক্ষ বন্দর শ্মশানঘাট পরিদর্শন করতে আসেন। সূত্রের খবর জেলা ও জেলার বাইরের করোনা ভাইরাস আক্রান্তে মৃতদের শবদেহ এই বন্দর শ্মশানের বৈদ্যুতিক চুল্লিতে দাহ করা হবে। এই ধরনের খবর চাউর হতেই এলাকার বাসিন্দারা আতঙ্কিত হয়ে পড়েন। তারা কিছুতেই এই শ্মশানে এই ধরনের মৃতদেহের সৎকার করতে দেবেন না এই দাবিতে শ্মশানঘাটের রাস্তা আটকে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করে।

স্থানীয় বাসিন্দাদের আরও অভিযোগ, রায়গঞ্জ শহরের সমস্ত ময়লা আবর্জনা, মল এবং রায়গঞ্জ গভর্মেন্ট মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সমস্ত বর্জ্য পদার্থ বন্দর শ্মশানঘাট সংলগ্ন এলাকায় ফেলা হয়। এরফলে এলাকায় ব্যাপক দূষন ছড়াচ্ছে। এব্যাপারে স্থানীয় কাউন্সিলর বা পুর কর্তৃপক্ষকে জানিয়েও কোনও সুরাহা হয়নি। এই এলাকায় আবর্জনা ফেলা বন্ধ করার দাবিতে এবং করোনা আক্রান্ত মৃতদের দেহ সৎকার না করার দাবিতে অনড় বাসিন্দারা শ্মশানঘাটের পথ আটকে বিক্ষোভ আন্দোলন চালায়।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here